খুলনা | শনিবার | ০৮ অগাস্ট ২০২০ | ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

ফিরে গেলেন অশ্রুসিক্ত বিশ সহস্রাধিক চাকুরিপ্রার্থী

খুলনার চাকুরি মেলায় প্রার্থীদের সফলতার বিন্দু আর হতাশার সিন্ধু

আশরাফুল ইসলাম নূর | প্রকাশিত ২৩ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:৩০:০০

২১-২২ জানুয়ারি দাপ্তরিক সময়ে খুলনা জেলা স্টেডিয়ামের জিনেশিয়াম ছিল চাকুরি প্রার্থীতে ভরপুর। আউটার স্টেডিয়াম চত্বর ছিল জনাকীর্ণ। এ দু’দিনে খুলনা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে বিশ সহস্রাধিক চাকুরি প্রার্থী এসেছিলেন বুকভরা স্বপ্ন নিয়ে। ফিরেছেন শূন্যহাতে অশ্র“সিক্ত হতাশার দীর্ঘশ্বাসে। আয়োজকদের তথ্যমতে, চাকুরি হতে পারে একশ’ জনের। মেলায় থেকে বিন্দু পরিমাণ সফলতা আর হতাশার সিন্দু বুকে নিয়ে ঘরে ফিরেছেন চাকুরি প্রার্থীরা। আয়োজকদের সংকীর্ণতা ও অধিক বিজ্ঞাপনকে দায়ী করছেন তারা।
বিডি জবস’র কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ আলী ফিরোজ বলেন, “খুলনায় গত ২১ থেকে ২২ জানুয়ারি দুইদিন ব্যাপী চাকুরি মেলায় দেশ-বিদেশের ৩৪টি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এসেছিল। এসব প্রতিষ্ঠানে ১১৪টি শূন্য পদে নিয়োগ দিবেন তারা। সিভি সাবমিট করেছেন ছয় সহস্রাধিক চাকুরি প্রার্থী। গতকাল বুধবার ইন্টারভিউ নেয়া হয়েছে এক হাজার ৪১ জনের। আমরা আশা করছি, শতাধিক চাকুরি প্রার্থীর স্বপ্ন পূরণ হবে; তারা চাকুরি পাবেন। বুধবার মেলা প্রাঙ্গণে সরাসরি সাক্ষাতকার গ্রহণ করা হয়। পরবর্তীতে যোগ্যদের নিয়োগপত্র প্রেরণ করা হবে।” মেলায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থী, বেকার তরুণ-তরুণী মিলে বিশ সহস্রাধিক চাকুরি প্রার্থী সমাগম ঘটে বলে আয়োজকদের একাধিক সূত্র জানিয়েছেন।
বিডি জবস’র পরিচালক (সেলস এ্যান্ড মার্কেটিং) প্রকাশ রায় চৌধুরী বলেন, ‘বর্তমান চাকুরির বাজারের বাস্তবতা হলো চাকুরিদাতা দক্ষকর্মী পাচ্ছেন না। আবার চাকুরি প্রার্থীরা পছন্দের চাকুরি পাচ্ছেন না। চাকুরি প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কর্মমুখী দক্ষতার অভাবেই এটি ঘটছে। বিডি জবস ডট কম চাকুরিদাতা এবং চাকুরিপ্রার্থীদের মধ্যকার দূরত্ব কমানোর জন্য গত ১৪ বছর ধরে দেশের বিভিন্নস্থানে চাকুরি মেলা এবং চাকুরি বাজারের জন্য প্রস্তুতিমূলক কর্মশালার আয়োজন করে আসছে।’ গত মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।
গতকাল বুধবার বিকেলে এ প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় কয়েকজন চাকুরি প্রার্থীর। চাকুরির সাক্ষাতকার দিয়ে বের হয়েছেন তারা। তাদের অভিযোগ, ‘বিডি জবস্ চমকপ্রদ বিজ্ঞাপন সর্বস্ব চাকুরি মেলা করেছে। প্রকৃতপক্ষে, এখানে চাকুরি সুযোগ নেই; প্রতারণার ফাঁদ মাত্র। কৌশলে চাকুরি প্রার্থীদের মাঝে নিজেদের বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়েছে।’
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন চাকুরি প্রার্থী বললেন, সকল প্রশ্নের উত্তর শতভাগ সঠিক দিয়েছি; কিন্তু আমি নিশ্চিত আমার চাকুরি হবে না। এখানে একটা শুভাঙ্করের ফাঁকি রয়েছে, খুব সুক্ষ্ম। মোটকথা হলো-অসহায় চাকুরি প্রার্থীদের নিয়ে পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র সবাই মজা করে।” কথা শেষ করেই দু’চোখে গড়িয়ে পড়া অশ্র“ মুচলেন ওই উচ্চশিক্ষিত চাকুরি প্রার্থী।
পাশে দাঁড়িয়ে আরেকজন চাকুরি প্রার্থী বললেন, ‘পরবর্তীতে নিয়োগপত্র দেয়া হবে! সেটা কবে? কতদিনের মধ্যে তা কেউ বললেন না। মেলায় যারা প্রথমদিন এসেছিলাম, তাদের মধ্যে আজকের (বুধবার) সফলতার পরিমাণ বিন্দু আর ব্যর্থতা বা হতাশার সিন্দু।’ 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ











শোকাবহ আগস্ট

শোকাবহ আগস্ট

০৮ অগাস্ট, ২০২০ ০১:০৫



ব্রেকিং নিউজ











শোকাবহ আগস্ট

শোকাবহ আগস্ট

০৮ অগাস্ট, ২০২০ ০১:০৫