খুলনা | রবিবার | ০৯ অগাস্ট ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

নগরীতে প্রধান জামাত সকাল ৮টায় টাউন জামে মসজিদে

পবিত্র ঈদুল আযহা কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ৩১ জুলাই, ২০২০ ০০:১০:০০

‘ঈদুজ্জোহার চাঁদ হাসে ঐ এলো আবার দুসরা ঈদ! কোরবানি  দে, কোরবানি দে, শোন খোদার ফরমান তাগিদ..’ কাজী নজরুল ইসলামের এই কাব্যসুর আকাশ-বাতাস মন্ডিত করে মন প্রাণ উজালা করে তুলছে ঈদের আনন্দ-রোশনাইয়ে। আগামীকাল শনিবার পবিত্র ঈদুল আযহা। ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তম দু’টি ধর্মীয় উৎসবের অন্যতম এ ঈদুল আযহা। ভেদাভেদ ভুলে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে মিলিত হওয়ার দিন। মহান আল্ল­াহ’র উদ্দেশ্যে পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে দেশের মুসলিম সম্প্রদায় তাদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা উদ্যাপন করবেন। ঘরে ঘরে ত্যাগের আনন্দে মহিমান্বিত হবে মন।
এবারে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে উন্মুক্ত স্থানে বা মাঠে কোন ঈদের জামাত হবে না। ঈদের দিন শনিবার সকালে ঈদুল আযহার দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায়ের জন্য মুসল্লি­রা যাবেন মসজিদে। খতিব নামাজের খুতবায় তুলে ধরবেন কোরবানির তাৎপর্য। করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ আদায় করবেন মুসল্লিরা। আনন্দের দিনে অশ্র“সিক্ত হয়ে চিরকালের জন্য চলে যাওয়া স্বজনের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে আল্ল­াহর দরবারে করজোড়ে মোনাজাত করবেন তাঁরা। 
স্বাস্থ্যবিধি সমূহ : সরকারি নির্দেশনা মেনে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঈদের জামাতের কাতারে দাঁড়াতে হবে। এক কাতার অন্তর এক কাতার করে দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করতে হবে। মসজিদের অযুর স্থানে সাবান ও স্যানিটাইজার রাখতে হবে। মুসল্লিদের বাসা থেকে অযু করে এবং মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। অযু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। জামায়াত শেষে কোলাকুলি এবং পরস্পর হাত মেলানো যাবে না। মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে এবং মুসল্লিগণ বাসা থেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন। মসজিদের টুপি এবং জায়নামাজ ব্যবহার করা যাবে না। শিশু, বয়োবৃদ্ধ, যে কোন অসুস্থ ব্যক্তি, অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। করোনাভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পেতে নামাজ শেষে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করা হবে।
এদিকে পবিত্র ঈদুল আযহা উদ্যাপনের লক্ষে খুলনাতে সরকারিভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।
নামাজ : খুলনায় ঈদ-উল-আযহার প্রধান ও প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল আটটায় টাউন জামে মসজিদে। ঈদের প্রথম ও প্রধান জামাতে ইমামতি করবেন টাউন জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোহম্মদ সালেহ। একই স্থানে দ্বিতীয় ও শেষ জামাত সকাল নয়টায় অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া কোর্ট জামে মসজিদে সকাল সাড়ে আটটায় একটি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। খুলনা আলিয়া কামিল মাদ্রাসা জামে মসজিদ, নিউমার্কেট বায়তুন নূর জামে মসজিদ, রূপসা বায়তুশ শরফ জামে মসজিদ, সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকা (২য় ফেজ) বায়তুল্লাহ জামে মসজিদসহ নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন মসজিদে নিজেদের সময় অনুযায়ী ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া জেলা পর্যায়েও বিভিন্ন মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাত আদায় করা যাবে।
ঈদুল আযহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠানের সময় মুসল্লিদের অযুর জন্য টাউন জামে মসজিদ, কোর্ট মসজিদ ও নিউমার্কেট বায়তুন নূর জামে মসজিদে খুলনা ওয়াসা পানির ব্যবস্থা রাখবে।
খুলনা সিটি কর্পোরেশন  : বায়তুন নূর জামে মসজিদ কমপ্লেক্স-এ পবিত্র ঈদের দু’টি জামায়াত হবে। সকাল ৮ টায় ১ম জামায়াতে ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা ইমরান উল্লাহ এবং সকাল ৯ টায় ২য় জামায়াতে ইমামতি করবেন মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা আব্দুল গফুর। 
খুলনা বিশ্বদ্যিালয় :  পবিত্র ঈদুল আযহা’র নামাজের জামাত শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে আগামী শনিবার  সকাল ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন নতুন কেন্দ্রীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান ঈদের এ জামাতে নামাজ আদায় করবেন। নামাজে ইমামতি করবেন বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস। ঈদের জামাতে আগত মুসল্লিদের অবশ্যই জায়নামাজ সাথে নিয়ে ও মাস্ক পরিধান করে আসার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। 
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় : ঈদুল আযহার জামাত শনিবার সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে।
খানজাহান আলী থানা : নগরীর খানজাহান আলী থানা এলাকার ঈদের জামাত শনিবার গিলাতলা গাজীপাড়া বায়তুন নাজাত জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, গিলাতলা বায়তুল হামদ্ জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, মোল্লাপাড়া জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, শেখপাড়া বায়তুল আমান জামে মসজিদে সাড়ে ৭টায়, গিলাতলা বাজার (ফাঁড়ি) মসজিদে সকাল ৭টায়, শিরোমনি পূর্বপাড়া বায়তুল আক্সা জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, শিরোমণি বায়তুল মা’মুর (বাজার) জামে মসজিদে সকাল ৭টায়, ৮টায় ও ৯টায়, ফুলবাড়ীগেট বাজার জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, ফুলবাড়ীগেট বায়তুল আমান জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে।
আইন-শৃঙ্খলা  : ঈদে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মহানগর ও মহানগরের বাইরের বিভিন্ন স্পটে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। অজ্ঞান পার্টি, মলম পার্টি, ছিনতাইকারী ও পকেটমারদের তৎপরতা বন্ধে বিভিন্ন স্থানে সাদা পোশাকধারী পুলিশ মোতায়ন এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। ঈদ-উল-আযহার সময় আতশবাজি ও পটকা ফোটানো, রাস্তা বন্ধ করে স্টল তৈরি, উচ্চস্বরে মাইক, ড্রাম বাজানো, রঙিন পানি ছিটানো এবং বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালানো যাবে না।
উপজেলাসমূহেও স্থানীয়ভাবে অনুরূপ কর্মসূচি অনুযায়ী ঈদুল আযহা উদ্যাপন করা হবে। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ