খুলনা | রবিবার | ০৯ অগাস্ট ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

হাসিল আদায় ৬৬ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪৭

জমে উঠেছে জোড়াগেট পশুরহাট ছোট গরুর কদর বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ৩১ জুলাই, ২০২০ ০০:২৫:০০


জমে উঠছে খুলনা সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত জোড়াগেট পশুর হাট। খুলনাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে পশু আসছে। হাটে পুরোদমে বেচা-কেনা শুরু হয়েছে। তবে এবার হাটে বড় গরুর চাহিদা কম, বেড়েছে ছোট গরুর কদর। এ অবস্থার মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টা পর্যন্ত ২ হাজার ৩৪২টি পশু বিক্রি হয়। এর মধ্যে গরু ১৯২০টি ও ছাগল ৪১৮টি। এ বাবদ হাসিল আদায় হয় ৬৬ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪৭ টাকা।
জানা গেছে, গত ২৬ আগস্ট কেসিসি পরিচালিত জোড়াগেট পশুর হাটের উদ্বোধন করা হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে হাটে পশু কেনা-বেচা শুরু হয় পরদিন অর্থাৎ ২৭ আগস্ট। প্রথমদিকে পশুর উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলে গতকাল সন্ধ্যা থেকে বিভিন্ন উপজেলাসহ আশপাশ জেলা থেকে প্রচুর পশু এসেছে। স্থানীয় হাটগুলো শেষ হওয়ায় আজ শুক্রবার হাটে পশুর সংখ্যা আরও বাড়বে এবং পুরোদমে চলবে বেচা-কেনা। তবে হাটে আসা বড় পশুর দাম অনেক কম বলে হতাশা প্রকাশ করেছেন বিক্রেতারা।
বাগেরহাট বাড়াইপাড়া থেকে আসা একজন বিক্রেতা মোঃ আবুল হোসেন জানান, তার দু’টি গরু এখনও হাটের সেরা গরুও মধ্যে রয়েছে। ব্রমাজাতের গুরুও ওজন ২২মণ ও অস্ট্রেলিয়ান জাতের গরুর ওজন ২৪মণ। গরু দু’টির দাম চেয়েছেন ১৯ লাখ টাকা। গতকাল পর্যন্ত ২২ মণ ওজনের গরুর দাম উঠেছে ৫ লাখ টাকা আর ২৪ মণ ওজনের গরুও দাম উঠেছে সাড়ে ৬ লাখ টাকা। কিন্তু তাতে তিনি বিক্রি করতে রাজি হননি। কারণ উৎপাদন খরচ অনেক বেশি হওয়ায় চরম লোকসানে পড়তে হবে।
অপর দিকে মাঝারী সাইজের ৭০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা দামের গরুও কদর রয়েছে। এ ধরনের গরুও বেচা-বিক্রি অনেক বেশি।
কেসিসি’র ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ শামসুজ্জামান মিয়া স্বপন জানান, ইতোমধ্যে পশুর হাট জমে উঠেছে। হাটে প্রচুর পশু এসেছে। গতকাল সন্ধ্যার পর থেকে ত্রেতার উপস্থিতি বেড়েছে। আজ পুরোদমে বেচা-কেনা শুরু হবে। তাই গতবারের চেয়ে এ বছর রাজস্ব আয় বেশি হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ