খুলা | শনিবার | ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ | ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৭ |

দেশে নতুন ফায়ার স্টেশন স্থাপনের উদ্যোগ প্রশংসনীয় 

২২ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০:০০

দেশে নতুন ফায়ার স্টেশন স্থাপনের উদ্যোগ প্রশংসনীয় 

অগ্নি দুর্ঘটনা বেড়েছে দেশে। বিশেষ করে গত কয়েক বছর আগুনে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে অনেক। প্রাণও হারিয়েছে অনেকে। এতে করে বেড়েছে জনমনে উদ্বেগ। বর্তমানে দেশজুড়ে স্থাপিত ফায়ার স্টেশনের সংখ্যা ৪৩৬টি। আগামী ২০২১ সাল নাগাদ আরও ১২৯টি নতুন ফায়ার স্টেশন স্থাপন হবে। ফলে ফায়ার স্টেশনের সংখ্যা দাঁড়াবে ৫৬৫টি। এছাড়া আরও ১১টি আধুনিক মডেল ফায়ার স্টেশন স্থাপনের পরিকল্পনা করছে সরকার। গত বৃহস্পতিবার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ-২০২০ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব তথ্য জানিয়েছেন। ‘প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা প্রস্তুতি, দুর্যোগ মোকাবিলায় আনবে গতি’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ শুরু হয়েছে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সরকার প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক উপজেলায় ফায়ার স্টেশন স্থাপনের নির্দেশনা দিয়েছেন। এর অংশ হিসেবে পর্যায়ক্রমে প্রত্যেক উপজেলায় ফায়ার স্টেশন স্থাপনের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এক সময় নয়তলা পর্যন্ত অগ্নি নির্বাপণের সক্ষমতা ছিল ফায়ার সার্ভিসের। এখন ২০ তলা পর্যন্ত ওঠার সক্ষমতা আছে। আগামী বছর ২২ তলা পর্যন্ত ওঠার সক্ষমতা অর্জন করবে বাহিনীটি। এছাড়া আগে ফায়ার সার্ভিসের বিশেষ গাড়ি ছিল পাঁচটি, এখন সেই গাড়ির সংখ্যা ১০৮টি। প্রতিটি ফায়ার স্টেশনে পর্যায়ক্রমে অ্যাম্বুলেন্স দেওয়া হবে। ফায়ার সার্ভিসের জনবল বৃদ্ধিতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার আগে ফায়ার সার্ভিসের জনবল ছিল ৬ হাজার ১৭৫ জন। বর্তমানে মোট জনবলের সংখ্যা ১৩ হাজার ১০০ জন। এ জনবল ২৫ হাজারের অধিক করার জন্য অর্গানোগ্রামের কাজ চলছে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য বঙ্গবন্ধু ফায়ার একাডেমি স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এটি চালু হলে আমাদের কর্মীদের দেশেই উন্নত প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব। শুধু তাই নয়, বিদেশ থেকেও লোকজন এসে এখানে প্রশিক্ষণ নিতে পারবে। সড়কে বা নদীতে যেখানেই দুর্ঘটনা দেখেছি সেখানেই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেবা দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। মনে করি এ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ পালনের মাধ্যমে কর্মীদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে এবং তাদের সঙ্গে জনসাধারণের সম্পৃক্ততা বাড়বে।
ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ার রূপকল্পের সঙ্গে সমানতালে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের প্রত্যক্ষ নজরদারির পাশাপাশি এ প্রতিষ্ঠানের জন্য এগিয়ে চলায় সাহস সঞ্চার করছে দেশের অগণিত মানুষের অকুণ্ঠ সমর্থন ও আস্থা। এর প্রতিফলন হিসেবে যে কোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে সামর্থ্য অনুযায়ী এ বিভাগের কর্মীরা সেবা প্রদানে ও জনগণের জানমাল হেফাজতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। নতুন ফায়ার স্টেশন স্থাপনের উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। সংশ্লিষ্টরা তৎপর থাকলে দুর্ঘটনায় ক্ষতির মাত্রা কমিয়ে আনা সম্ভব হবে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


করোনায়ও সবজিতে সিন্ডিকেটের থাবা

করোনায়ও সবজিতে সিন্ডিকেটের থাবা

০৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০


বোরো মৌসুমই বড় ভরসা

বোরো মৌসুমই বড় ভরসা

০২ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০






নতুন পরীক্ষা পদ্ধতি

নতুন পরীক্ষা পদ্ধতি

২৬ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০




ব্রেকিং নিউজ

বিজয়ের মাস  ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস  ডিসেম্বর

০৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:২৬