খুলনা | শুক্রবার | ১৫ জানুয়ারী ২০২১ | ২ মাঘ ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

পাল্টে যাবে বিপনী বিতানের চেহারা

বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ উদ্যোগে হচ্ছে ২’শ কোটি টাকার প্রকল্প

এন আই রকি | প্রকাশিত ০৪ জানুয়ারী, ২০২১ ০০:০৪:০০

নগরীর বিপনী বিতান কেন্দ্রের (নিক্সন মার্কেট) চেহারা বদলে যাচ্ছে। খুব দ্রুতই রেলওয়ের ৬ একর ২৫ শতক জমি নিজ নিয়ন্ত্রণে নেওয়া হচ্ছে। এই জমিতে নির্মাণ করা হবে কমিউনিটি সেন্টার, মার্কেট, কমার্শিয়াল স্পেস, রেলের কোয়াটারসহ পুনর্বাসিত হবে ক্ষতিগ্রস্ত মার্কেট ব্যবসায়ীরা। প্রায় ২শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ-ভারত যৌথভাবে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবেন।
জানা যায়, ‘ডেভেলপমেন্ট অফ শপিং কমপ্লেক্স কাম গেস্ট হাউস অন পিপিপি বেসিস অফ বাংলাদেশ রেলওয়ে’ নামক প্রকল্পের আওতায় রেলের নিজস্ব জমিতেই আগামী ৪ মাসের মধ্যে প্রকল্পের কাজ দৃশ্যমান হবে। গতকাল রবিবার একটি টিম সরেজমিনে প্রকল্পের জমি পরিদর্শন করেন। 
রেলের টিটি কলোনী, নিউ কলোনী এলাকা জুড়েই হবে এই প্রকল্প। রেলস্টেশনের দক্ষিণ পাশের পাওয়ার হাউজ মোড় এলাকা থেকে হাসপাতাল রোড হয়ে নিক্সন মার্কেটের মসজিদ পর্যন্ত রেলওয়ের নিজস্ব জমি আওতাভুক্ত করে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। 
পরিদর্শনে আসা টিমের একটি সূত্র জানায়, এটা বাস্তবায়ন হলে খুলনা সিটিতে কমার্শিয়াল ইম্পোর্টার বাড়বে, কমার্শিয়াল বিল্ডিং হওয়ার পর খুলনায় লিভিং স্ট্যান্ডার্ড আপগেট হবে, পার্কিং ফ্যাসিটিলি এবং টয়লেট ফ্যাসিলিটি ভাল করার মাধ্যমে শপিং কমপ্লেক্স হলে বিকিকিনি বাড়বে। যেহেতু কমার্শিয়াল এবং শপিং প্লেস পাশাপাশি হবে তাই এটা অবশ্যই খুলনার মানুষের জন্য বাড়তি কিছু দিতে পারবে। সবথেকে বড় বিষয় হল এতে করে রেলওয়ের আয় বাড়বে। পাশাপাশি বর্তমানে যারা ব্যবসা করছেন তাদেরও উন্নত মানের শপিং কমপ্লেক্সে ব্যবসা করার সুযোগ সৃষ্টি হবে। 
সূত্রটি আরও জানায়, ইতোমধ্যে প্রকল্পের সকল কাজ শেষ হয়েছে। কারণ ২০১৬ সাল থেকেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। শপিং কমপ্লেক্সের নকশাসহ অনেক নকশাই প্রস্তাবিত ভাবে তৈরি করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ২শ’ কোটি টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। পরবর্তীতে এটা বৃদ্ধিও সম্ভাবনা আছে। খুব দ্রুতই পিপিআর এর মাধ্যমে টেন্ডার আহŸান করা হবে। পরিদর্শনের আসা টিমের কর্তৃপক্ষ আশাবাদী আগামী ৪ মাসের মধ্যেই প্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে। যেহেতু রেলওয়ের জমিতেই প্রকল্প হবে সেক্ষেত্রে কাজ করতে সহজ হবে। 
২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শামসুজ্জামান মিয়া স্বপন বলেন, এ বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে কবে নাগাদ কাজ শুরু হবে জানি না। প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে অবশ্যই ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসনের বিষয়ে প্রধান্য দিতে হবে। শপিং কমপ্লেক্সসহ কমার্শিয়াল স্পেস তৈরি হলে শুধু খুলনা নয় সারাদেশের অর্থনীতিতে ভাল প্রভাব ফেলবে। তিনি আরও বলেন, কর্মসংস্থান বৃদ্ধির ক্ষেত্রে এটা বড় ধরনের ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছি।
এদিকে খুলনা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি কাজী আমিনুল হক রবিবার রাতে প্রতিবেদককে জানান, এ প্রকল্প বিষয়ে কোন কিছুই আমার নলেজে নেই। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ





পাকিস্তানের টেস্ট দলে ৯ নতুন মুখ

পাকিস্তানের টেস্ট দলে ৯ নতুন মুখ

১৫ জানুয়ারী, ২০২১ ১৯:০৭


দ্রুততম মানব ইসমাইল, মানবী শিরিন

দ্রুততম মানব ইসমাইল, মানবী শিরিন

১৫ জানুয়ারী, ২০২১ ১৮:৩৪




দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোট কাল

দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোট কাল

১৫ জানুয়ারী, ২০২১ ১৭:২১