খুলনা | বৃহস্পতিবার | ০৪ মার্চ ২০২১ | ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

চারুকলায় না পড়েও রঙ তুলির স্বপ্নে সফল ব্যবসায়িক প্লাটফর্মে শর্মি

সুরাইয়া ইসলাম মীম | প্রকাশিত ২৩ জানুয়ারী, ২০২১ ০০:২৭:০০

কামরুন নাহার শর্মির চারুকলা বিভাগে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছা থাকলেও পরিস্থিতির জন্য হয়ে উঠেনি। বাবা-মার ইচ্ছে ছিল না মেয়ে চারুকলা নিয়ে পড়াশোনা করুক। নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়েই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগে পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।
কিন্তু আজ সে অনলাইন প্লাটফর্ম ‘ক্রাফট সিয়েরা’-এর স্বত্বাধিকারী কামরুন নাহার শর্মি। কামরুন নাহার শর্মির এই উদ্যোক্তা হয়ে উঠার পেছনে রয়েছে নানান চড়াই-উতরানোর গল্প। এটি জানতে হলে যেতে হবে আরো অনেক পেছনে।
ছোটবেলা থেকেই আঁকা-আঁকি বা ডিজাইনের প্রতি এক ধরনের নেশা ছিল শর্মির। রাত জেগে নতুন কিছু তৈরি করতে ভালবাসতেন। এতে তার কোনো ক্লান্তি কাজ করতো না কখনোই। পেইন্টিংয়ের কাজ শেখার প্রতি ছিল অদম্য আগ্রহ। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে নামিদামি কোম্পানির ব্র্যান্ড দেখে স্বপ্ন দেখতেন একদিন তারও হবে নিজস্ব একটা ব্র্যান্ড। জীবনকে নিয়ে সবাই বিভিন্ন ধরনের স্বপ্ন দেখে থাকেন। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সেই স্বপ্নগুলোর পরিবর্তন আসে। শর্মি বিশ্বাস করেন মানুষ চাইলে চারুকলায় না পড়েও তার রং তুলির স্বপ্ন সে তার ব্যবসায়িক প্লাটফর্মে তুলে ধরতে পারেন।
এ বিষয়ে শর্মির ভাষ্য, আনন্দিত হই যখন আমি আমার মত নারী উদ্যোক্তাদের দেখি। আর অনেকে আছে ইচ্ছে থাকা স্বত্তে¡ও হয়তো শুরু করতে পারছেন না, তাদের বলব শুরু করুন, ভয়কে জয় করেই আমাদের নারীদের এই সমাজে এগিয়ে যেতে হবে। আর সকল বাবা-মায়ের উচিত সন্তানদের উদ্যোক্তা হওয়ার পিছনে বাধা না দিয়ে, তাদের পাশে থাকা, এতে হয়তো  তারা আরো ভালো কিছু করতে পারবে। আমি যেমন সকল প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে এগিয়ে যাওয়ার সংকল্প করেছি, তেমনি চাইলে সবাই পারবে।
ক্রাফটিং, ড্রেস ডিজাইন আর আঁকা-আঁকি ছিলো তরুণীর নেশা। নিজের মতোন করে ক্যানভাসে রং তুলির জাদু তৈরি করতে পারেন বহুগুণে গুণান্বিতা তরুণ মেধাবী এই শিক্ষার্থী।
সফল উদ্যোক্তা হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বেশি সহযোগিতা করেছেন তাঁর বন্ধুরা। সব সময় তারা তাঁর পাশে থেকে সাহস জুগিয়েছেন। তাদের অনুপ্রেরণায় আজ তিনি এই জায়গায় আসতে পেরেছেন।
শর্মি মনে করেন, পড়াশোনা কেবল শেখার জন্য, জানার জন্য, চাকুরির জন্য না। তিনি বলেন, বিষয়টা যখন অন্তরে অনুভব করেছি তখন থেকেই চেষ্টা করে যাচ্ছি, যা করে আমি তৃপ্তি পাই তা নিয়েই পরে থাকতে। তাই এই করোনাকালিন সময়ে নিজের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করি, শুরু করি নিজের ব্যবসা। এভাবেই পথচলা শুরু।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





অগ্নিঝরা মার্চ

অগ্নিঝরা মার্চ

০৪ মার্চ, ২০২১ ০০:৪৫









ব্রেকিং নিউজ





অগ্নিঝরা মার্চ

অগ্নিঝরা মার্চ

০৪ মার্চ, ২০২১ ০০:৪৫