খুলনা | বৃহস্পতিবার | ০৪ মার্চ ২০২১ | ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭ |

Shomoyer Khobor

প্রতিবন্ধকতার কারণে মেকাপ আর্টিস্ট না হয়েও পৌষি এখন সফল রন্ধন শিল্পী 

সুরাইয়া ইসলাম মীম  | প্রকাশিত ০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ০০:৩১:০০

পৌষি ইসহাকের ছোট বেলা থেকেই ছিল সাজসজ্জার প্রতি প্রবল আগ্রহ। পড়ালেখা করছেন আর্কিটেকচার বিভাগে। স্বস্তি পাচ্ছিলেন না কোন কিছুতেই, কেননা তার মন তাকে তাগিদ দিচ্ছিল তার মধ্যকার শিল্পীসত্তাকে জাগিয়ে তোলার। পৌষির স্বপ্ন ছিল তিনি একজন বড় মেকাপ আর্টিস্ট হবেন কিন্তু বেশকিছু প্রতিবন্ধকতার কারণে তিনি আজ মেকাপ আর্টিস্ট না হয়েও, হয়েছেন একজন সফল রন্ধন শিল্পী। মনের ইচ্ছা শক্তি অন্য পেশায় থাকলেও ভালবাসা কাজে লাগিয়ে ১৫০টি খাবারের আইটেম নিয়ে “পৌষি’স কুকটাউন”-এর যাত্রা শুরু করে। 
২০২০ সালে পৌষি বেকিং আইটেম, ফাস্ট ফুড, বিরিয়ানি আইটেমসহ প্রায় ১৫০টির বেশি আইটেম নিয়ে কাজ শুরু করেন। পৌষী প্রথমে তার ঘরোয়া রেস্টুরেন্টের জন্য তার পরিচিত এক ছোটবোন সামিহা সৃষ্টিকে একসাথে পৌষি’স কুকটাউন- এর কার্যক্রম পরিচালনা করার আগ্রহ প্রকাশ করে। তবে প্রথম সময়ে এই ব্যবসা নিয়ে সহকর্মী সামিহা রাজি না হলেও পরবর্তী সময়ে যখন পৌষি'স কুকটাউন-এর পরিচিতি বৃদ্ধি পেতে থাকে তখন পৌষির অনুপ্রেরণায় সামিহা আগ্রহী হয়ে এই প্রতিষ্ঠানে যুক্ত হয়। তারপর থেকেই তাদের দুইজনের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই ব্যবসা এগিয়ে যাচ্ছে। সব খাবারেই ঘরোয়া স্বাদ পাওয়া যায় “পৌষি’স কুকটাউন”-এ। 
আজকের এই উদ্যোক্তা হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বেশি সহযোগিতা করেছেন তাঁর মা। সব সময় তাঁকে তার পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দ সাহস জুগিয়েছেন, অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। এছাড়াও অনেক বেশি সহযোগিতা পেয়েছেন মুফরিত জোহানী এবং সামিহা সৃষ্টির থেকে। তাদের সহযোগীতা ছাড়া কখনোই সম্ভব ছিলনা আজ এই প্রতিষ্ঠান চালিয়ে যাওয়া। 
পৌষি তার শখের বিউটি ব্লগারের কাজ না করতে পারলেও তিনি তার অভিজ্ঞতা ব্যবহার করেই  “পৌষি’স কুকটাউন”-এর পাশাপাশি কাজ করে যাচ্ছেন “দা ব্রাউন বিউটি”, “বিউটি বুকস্”, “হিজাব ফ্যাশন গার্লস”- এর অনলাইন প্লাটফর্মে। 
পৌষি বলেন, ‘করোনাভাইরাস যখন আঘাত হানলো, এর প্রভাবে যখন হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলো বন্ধ হয়ে গেল— সেই তখন থেকে মানুষ বাড়িতে তৈরি খাবারের দিকে ঝুঁকতে থাকে। ওই সময় থেকে আমাদের গ্রাহক ক্রমেই বাড়ছিল। আমাদের কাছ থেকে স্বাস্থ্যকর ও তাজা খাবারের নিশ্চয়তা পেয়ে দিন দিন গ্রাহকের সংখ্যা বাড়তেই থাকে।’
পৌষির স্বপ্ন, এই প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে আরো অনেকদূর এগিয়ে যাওয়ার। পৌষির বিশ্বাস, বাসায় তৈরি খাবারের চাহিদা দিন দিন আরও বাড়তে থাকবে যদি উদ্যোক্তারা তাদের সেবার মান ধরে রাখতে পারেন।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





ফসলের সাথে এ কেমন শত্রুতা

ফসলের সাথে এ কেমন শত্রুতা

০৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০









ব্রেকিং নিউজ





ফসলের সাথে এ কেমন শত্রুতা

ফসলের সাথে এ কেমন শত্রুতা

০৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০