খুলনা | শুক্রবার | ০৭ মে ২০২১ | ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ |

Shomoyer Khobor

মোংলায় দুই ইউপি চেয়ারম্যান সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১৩

মোংলা প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৩:৩৩:০০

মোংলার সুন্দরবন ইউনিয়নের দিগরাজ বাজার এলাকায় দুই ইউপি চেয়ারম্যান সমর্থকদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক সংঘর্ষে অন্তত ১৩ জন আহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। আহতদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের আবুল বাশার শেখের (৬৫) কাছ থেকে হাটের ইজারার কথা বলে জোর করে মইন উদ্দিন ও ফরিদ শেখ নামে দু’ব্যক্তি প্রতি বছর মোটা অংকের টাকা আদায় করে আসছিল। কিন্তু হাটের ইজারাদার কোন বৈধতা এদের ছিল না। এবার হাটের ইজারার টাকা দাবি করলেও আবুল বাশার শেখ তা না দিলে ঘটনার সময় উভয়ের মধ্যে এ নিয়ে সংঘাত ও সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষের এক পর্যায় বর্তমান চেয়ারম্যান কবির শেখ’র লোকদের হাতে ভবিষ্যত চেয়ারম্যান ইকরাম ইজারাদারের ১৩ জন লোক আহত হয়েছে। এদের মধ্যে আ: মান্নান শিকারী, আলামিন শেখ, নবাব শেখ, মান্নাফ শেখ ও আবু জাফর শেখকে রক্তাক্ত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি  করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। 

সুন্দরবন ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের মনোনিত নৌকা প্রতিকের (বিনা প্রতিদ্ব›দ্বীতায় নির্বাচিত) চেয়ারম্যান মোঃ ইকরাম ইজারাদার বলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ কবির উদ্দিন নৌকা প্রতিক না পাওয়ায় পুর্ব থেকেই আমাদের লোকজন ও সমর্থকদের উপর কারনে-অকারণে সমস্যা সৃষ্টি করে আসছিল। শুক্রবার রাতে তুচ্ছ একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাদের লোকজনের উপর পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমাদের ১৩ জন আহত হয়েছে। ৫ জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানায় তিনি। 

বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ কবির উদ্দিন তার বিরুদ্ধে সকল অভিযোগ অস্বীকার করের বলেন, দীর্ঘদিন সুন্দরবন ইউনিয়ন সুষ্ঠ ও শান্তি অবস্থা বিরাজ করছিল। কিন্ত নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর লোকজন এলাকার মানুষদের অহেতুক ভাবে হয়রানিসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছে। আমাকে এলাকায় হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তারা নিজেরা নিজেদের লোকজনের সাথে সংঘাত সৃষ্টি করে আমার লোকজনের উপর দোষারোপ করছে বলে জানায় চেয়ারম্যান শেখ কবির উদ্দিন। 

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, সুন্দরবন ইউনিয়নের সংঘর্ষের ব্যাপারে এখনও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলে জানায় থানার এ কর্মকর্তা।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ