খুলনা | বুধবার | ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮ ফাল্গুন ১৪৩০

দ্বিতীয় দফায় বহিষ্কার

আবারও ইয়াবাসহ গ্রেফতার খালিশপুরের ছাত্রলীগ নেতা পলাশ কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক |
০৫:১৯ পি.এম | ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪


আবারও ইয়াবাসহ আটক হয়েছেন নগরীর খালিশপুর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পলাশ হাওলাদার। রোববার রাতে নগরীর দৌলতপুর হাঁস খামারের সামনে থেকে ৩৩ পিস ইয়াবাসহ তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় সোমবার দৌলতপুর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। পরে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে পলাশকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
এ অভিযানে তাদের কাছ থেকে আড়াইশ’ পিস ইয়াবা, ৪১২ গ্রাম গাঁজা, ৩৫ লিটার মদ, এক রাউন্ড পিস্তলের গুলি এবং মাদক বিক্রির নগদ ৪৩২০ টাকা জব্দ করা হয়। এসব ঘটনায় পলাশ হাওলাদারের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নয়টি মামলা হয়েছে।
এর আগে ২০১৯ সালের ২৫ মে দুপুরে নগরীর বাস্তুহারা কলোনি থেকে ২০ পিস ইয়াবাসহ পলাশ হাওলাদারকে আটক করেছিল পুলিশ। এ ঘটনায় তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। গত বছর তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় তাকে আবারও বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন নগর ছাত্রলীগ সভাপতি।
খালিশপুর থানার এসআই মাসুদ রানা জানান, রোববার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর দৌলতপুর পাবলা হাঁস খামারের পূর্ব পাশ থেকে ৩৩ পিস ইয়াবাসহ পলাশ হাওলাদার ও শহিদুল খাঁ নামের দু’জনকে আটক করা হয়। এ সময় একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় দৌলতপুর থানায় মামলা হয়েছে। রোববার দিবাগত রাত ৯টার দিকে এস আই মাসুদ রানার দৌলতপুর এবং খালিশপুর থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়। আটক পলাশ হালদার বর্তমানে খালিশপুর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, তার বাসা বাস্তুহারায়। অপর দিকে, শহিদুল খাঁ খালিশপুর কদমতলা মোড়ের রনির ভাড়াটিয়া। উভয়ের বিরুদ্ধে পূর্বেও মাদকের মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।
খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহজালাল হোসেন সুজন জানান, ২০১৯ সালের মামলায় আদালত থেকে পলাশ খালাস পায়। এ জন্য নির্বাচনের আগে অন্য অনেকের সঙ্গে পলাশের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। আবারও ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় তাকে পুনরায় বহিষ্কারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ