খুলনা | বুধবার | ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮ ফাল্গুন ১৪৩০

চার মাদক কারবারির যাবজ্জীবন

খবর প্রতিবেদন |
০৩:৪৫ পি.এম | ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪


সাত বছর আগে রাজধানীর রমনা এলাকা থেকে ৯০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারের মামলায় চার মাদক কারবারিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার বিশেষ দায়রা জজ মো. ইকবাল হোসেনের আদালত এ রায় দেন।

দণ্ডিতরা হলেন-সাতক্ষীরার কলারোয়া থানার কাকডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রফের ছেলে ওয়াহিদুজ্জামান মেহেদী, পাবনা সদর থানার হাজারীপুরের আব্দুর রহমানের ছেলে রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরা সদর থানার তাজালপুরের ফজলে মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম ও একই এলাকার বাবুল মোড়লের ছেলে আশরাফুজ্জামান সাগর।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে জাহাঙ্গীর, ওয়াহিদুজ্জামান ও রফিকুল আদালতে হাজির ছিলেন। রায় শেষে সাজা পরোয়ানা দিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। অন্য আসামি আশরাফুজ্জামানের পক্ষে অসুস্থতার কথা জানিয়ে সময় আবেদন করা হয়। আদালত সময় আবেদন নামঞ্জুর করেন। তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানাসহ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী সোহানুর রহমান সাজার বিষয় নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট ডিবি পুলিশ গোপন সূত্রে জানতে পারে যশোর সীমান্ত এলাকা থেকে ভারতীয় নিষিদ্ধ ফেনসিডিল নিয়ে একটি প্রাইভেটকার ও একটি কাভার্ডভ্যান ঢাকার দিকে আসছে। আব্দুল্লাপুর এলাকা থেকে গাড়ি দুটি অনুসরণ করে ডিবি পুলিশ। পরে রমনা মডেল থানাধীন মগবাজার মোড়ে গাড়ি দুটি তল্লাশি করে ৯০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় ডিবি পুলিশ দক্ষিণের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিমের সাব-ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ নাজমুল হক রমনা মডেল থানায় ওইদিন মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করে একই সংস্থার পুলিশ পরিদর্শক আবু আনছার ওই বছরের ১৭ অক্টোবর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলার বিচার চলাকালে আদালত ১২ জন সাক্ষীর মধ্যে ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ