খুলনা | বুধবার | ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮ ফাল্গুন ১৪৩০

চিতলমারীতে বাইশ ফুটের সরস্বতীর সাথে আরও ৩৭ দেবদেবীর পূজা হবে

এস এস সাগর, চিতলমারী |
০৫:৩৭ পি.এম | ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪


বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার চরডাকাতিয়া বিদ্যাপুকুরে এবার ২২ ফুট উচ্চতার সরস্বতী প্রতিমা দিয়ে পূজা উদযাপন করা হবে। এ সময় বিদ্যাদেবীর সাথে থাকবে আরও ৩৭ দেবদেবীর মূর্তি। পূজা উপলক্ষে বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) সারাদিন এখানে চলবে জমকালো নানা আয়োজন। বাণী অর্চণায় নামবে মানুষের ঢল। ২০১৬ সাল থেকে এলাকার তরুণদের উদ্যোগে মায়ের আঁচল পূজা কমিটির ব্যতিক্রমধর্মী এ বৃহত্তম পূজার আয়োজন করে আসছে।

মায়ের আঁচল পূজা কমিটির সংশ্লিষ্টরা জানান, ২০১৬ সাল থেকে এলাকার ৪২ জন তরুণ যৌথ উদ্যোগের মাধ্যমে পূজাটি পরিচালনা করে আসছেন। ইতোমধ্যে এই বিদ্যাপুুকুরের সরস্বতী পূজার সুনাম আশ-পাশের জেলা-উপজেলা ছড়িয়ে পড়েছে। পূজার দিন হাজার হাজার দর্শনার্থী এ পূজা দেখতে আসেন। এ পূজার মূল আকর্ষণ হলো কমিটির সদস্যদের স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে পুকুরের মধ্যে বেদী তৈরি করে বিভিন্ন দেব-দেবীর ৩৮ টি মুর্তি দিয়ে পূজা করা। এ সকল মুর্তির মধ্যে রয়েছে, বিদ্যার দেবী সরস্বতী, রাধা-কৃষ্ণ, শিব, ল²ী-নারয়ন, কার্তিক, রাম-সীতা অন্যতম। পূজার ২ মাস পূর্ব থেকে সদস্যদের স্বেচ্ছাশ্রমের বিনিময়ে চলে মুর্তি তৈরি কাজ। মুর্তির কাঠামো তৈরি, রং করাসহ যাবতীয় কাজই নিজেরা করেন। প‚জা উপলক্ষে ৩ দিন ধরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় গানের অনুষ্ঠান।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে মায়ের আচল প‚জা কমিটির সভাপতি মিলন কৃষ্ণ মন্ডল বলেন, বিদ্যাপুকুরের সরস্বতী পূজা এলাকার একটি সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে। এলকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় এ পূজা দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্যতম বৃহত্তম একটি পূজা হিসেবে পরিগনিত হয়েছে। তিনি সকলকে পূজা দেখতে আসার আহবান জানান। 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ