খুলনা | সোমবার | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮

নগরীর হাসপাতালগুলোতে তিন ঘন্টায় করোনা টিকা শেষ!

নিজস্ব প্রতিবেদক |
১২:৪২ এ.এম | ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১

খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় মাকে করোনার টিকা দিতে নিয়ে এসেছেন হরিণটানা এলাকার বাসিন্দা নার্গিস বেগম। দুপুর ১২টা পর্যন্ত দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এরপর সেবিকারা জানিয়ে দেন আজ (মঙ্গলবার) টিকা শেষ। আগামীকাল (বুধবার) দেওয়া হবে। এমন ঘোষণায় তিনি রাগাম্বিত হয়ে বলেন, অসুস্থ মাকে নিয়ে এসেছি, অনেক কষ্ট করে। এতোক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে এখন বলছে টিকা শেষ। আবার আগামীকাল (বুধবার) আসতে হবে। 
সরেজমিনে দেখা যায়, টিকা না পেয়ে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে ফিরে যাচ্ছে শত শত মানুষ। অনেকেই উচ্চস্বরে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। অনেকেই সেবিকাদের সাথে বাগবিতন্ডায় লিপ্ত হন।  
এদিন খুলনা জেনারেল হাসপাতাল থেকেও টিকা নিয়ে ফিরেছেন অনেকেই। নগরীর দারোগাপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও শিক্ষার্থী কামিল হাসান এ প্রতিবেদককে বলেন,  প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছি। ম্যাসেজ পেয়ে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়ার জন্য আজ (মঙ্গলবার) এসেছি। কিন্তু এখানে দায়িত্বরতরা বলছেন টিকা শেষ। কাল (বুধবার) আসেন। আমি মালেয়েশিয়ার এশিয়া প্যাসেফিক ইউনিভার্সিটি অব ইনোভেশন এন্ড টেকনোলজি কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। করোনার কারনে গত বছর দেশে এসেছি। টিকা নেওয়ার পর আবার যেতে পারবো। যে জন্য সব কাজ ফেলে আজ (মঙ্গলবার) টিকা দিতে এসেছিলাম। ম্যাসেজে আজকের (মঙ্গলবার) তারিখ থাকলেও টিকা দিতে পারলাম না। আবার কাল আসতে হবে। 
একই স্থানে টিকা দিতে এসেছেন খুলনা সরকারি করোনেশন স্কুল এলাকার বাসিন্দা রূপা। তিনি বলেন, সব কাজ ফেলে টিকা দিতে এসেছি। আজ (মঙ্গলবার) টিকা দেওয়ার নির্ধারিত তারিখ তাকলেও দিতে পারছি না। এখানকার দায়িত্বরতরা বলছেন টিকা শেষ।  
শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডাঃ প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ বলেন, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা টিকা প্রদান করে থাকি। মঙ্গলবার টিকা স্বল্পতার কারনে কিছু মানুষকে ফিরে যেতে হয়েছে। আশাকরি আগামীকাল (বুধবার) থেকে এমনটা হবে না। 
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ স্বপন হালদার বলেন, টিকা শেষ হয়েছে, এমন সংবাদ আমার জানা নেই। চাহিদা মোতাবেক টিকা পাঠানো হয়েছে। কাল (বুধবার) অফিসে যেয়ে শুনে জানাতে পারবো। 
খুলনা সিভিল সার্জন ডাঃ নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, একটি ভয়ালে ১০ ডোজ ও ১৪ ডোজ টিকা থাকে। আজ (মঙ্গলবার) ১০ ডোজের ভয়াল শেষ হয়েছে। যে কারনে একটু আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে। বুধবার সকাল থেকে ১৪ ডোজের ভয়াল থেকে টিকা প্রদান করা হবে। টিকা গ্রহীতাদের ভালোর জন্য এবং গড়মিল যাতে না হয় সেজন্য ১০ ডোজের ভয়াল শেষ করে বুধবার থেকে ১৪ ডোজের ভয়াল থেকে টিকা প্রদান করা হবে। বুধবার থেকে এ সমস্যা আর থাকবে না বলে তিনি জানিয়েছেন। 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ