খুলনা | সোমবার | ২০ মে ২০২৪ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মেডিকেল শিক্ষার্থীকে আর্থিক অনুদান প্রদান আমিন মরিয়ম স্মৃতি পরিষদের

খবর বিজ্ঞপ্তি |
১২:৫০ এ.এম | ২৫ এপ্রিল ২০২৪


খুলনার বটিয়াঘাটার দরিদ্র পরিবারে মেধাবী সন্তান মোঃ রাসেল খানকে মেডিকেলে পড়ার খরচ বাবদ ৩০ হাজার টাকা আর্থিক অনুদান দিয়েছে আমিন মরিয়ম স্মৃতি পরিষদ। বুধবার বিকেলে স্থানীয় সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে এ অনুদান ও ক্রেস্ট প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) ড. ফারুক আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সিনিয়র সচিব ও সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন মোঃ আবদুস সামাদ। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন উপ-কমিশনার (ডিবি) ও পদোন্নতিপ্রাপ্ত অতিরিক্ত ডিআইজি বিএম নুরুজ্জামান বিপিএম ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ নাজমুল হুসেইন খাঁন। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আবুল বাশার মোল­া, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, এড. ওয়ালিউল ইসলাম, নারী নেত্রী শামীমা সুলতানা শিলু, শিক্ষার্থীর পিতা মোঃ মোজাম্মেল খান ও শিক্ষার্থী মোঃ রাসেল খান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক সংগঠক মাসুদ মাহমুদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধা কামরুল হক নাসিম, বিশিষ্ট সাংবাদিক গৌরাঙ্গ নন্দী, কাজী মোতাহার রহমান বাবু, ডাঃ বোরহান উদ্দিন আহমেদ, কালচারাল অফিসার সুজিত কুমার সাহা, মোঃ কামরুল ইসলাম বাবলু, কবি সৈয়দ আলী হাকিম, শরিফুল ইসলাম সেলিম, অধ্যাপক মুজাহিদুল ইসলাম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তহিদুল ইসলাম আজাদ, মোফাজ্জল খান, বিধান চন্দ্র রায়, খালিদ মাসুদ আবীর, পল­ব নন্দী, আল আমিন বিন জাহিদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে কেএমপি কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হকের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা, প্রফেসর আবুল বাশার মোল­া ৫ হাজার টাকা, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায় ২ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেন। ডাঃ বোরহান উদ্দিন আহমেদের পরিবারের পক্ষ থেকে প্রতি মাসে ন্যূনতম ১ হাজার টাকা ও ডাঃ সৈয়দ আবু সইদ প্রতিমাসে ১হাজার টাকা অনুদানের কথা ঘোষণা করেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা এ উদ্যোগের জন্য আমিন মরিয়ম স্মৃতি পরিষদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
উলে­খ্য, বটিয়াঘাটা উপজেলার হাটবাটি গ্রামের মোঃ মোজাম্মেল খানের পুত্র মোঃ রাসেল খান ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে লেখাপড়া করার সুযোগ পেয়েছে। তার অভিভাবক ক্ষুদ্র হোটেল ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকায় লেখাপড়ার খরচ যোগান দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় সহযোগিতার জন্য আমিন মরিয়ম স্মৃতি পরিষদ এগিয়ে আসে। দরিদ্র পরিবারের এ শিক্ষার্থী গত ৯ ফেব্রæয়ারী ভর্তি পরিক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ২০২২ সালে বটিয়াঘাটা কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে এইচএসসি, ২০২০ সালে চক্রাখালী সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪.৮৯ পেয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) খুলনা প্রশাসনের পক্ষ থেকে লেখাপড়া বাবদ মোঃ রাসেল খানকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের আশ^াস প্রদান করেন।
 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ