খুলনা | সোমবার | ২০ মে ২০২৪ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

চাঁদের গাড়ির ড্রাইভারে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

পাহাড়ে প্রকল্পের গাড়িতে সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিনের গুলি

খবর প্রতিবেদন |
০১:৩৭ এ.এম | ২৫ এপ্রিল ২০২৪


বান্দরবানের থানচি উপজেলায় সীমান্ত সড়ক নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত গাড়িতে আবারও গুলি ছুড়েছে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সন্ত্রাসীরা। বুধবার  বিকেলে উপজেলার নির্মাণাধীন সীমান্ত সড়কের ৮ কিলোমিটার নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় শ্রমিকরা জানান, বাকলাই-লিক্রে সীমান্ত সড়কের নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত ৪টি ট্রাকে ইট নিয়ে যাওয়া হয়। প্রকল্পের নির্ধারিত স্থানে ইটগুলো নামিয়ে ফেরার পথে সড়কের ওই স্থানে পৌঁছালে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। এতে আতঙ্কিত হয়ে শ্রমিকরা দ্রুতগতিতে গাড়ি চালিয়ে থানচি সদরে চলে যান।
থানচি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন জানান, অস্ত্রধারীরা নির্মাণকাজের ট্রাক লক্ষ্য করে গুলি ছুড়েছে। এতে ট্রাকের বিভিন্ন স্থানে গুলি লাগলেও কেউ হতাহত হননি।
৬ আসামি রিমান্ড শেষে কারাগারে : রুমা ও থানচিতে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ৬ আসামিকে ২ দিনের রিমান্ড শেষে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার বিকালে বান্দরবানের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ এস এম এমরানের আদালতের নির্দেশে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়। এ সময় থানচিতে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় ব্যবহৃত চাঁদের গাড়ির ড্রাইভার কফিল উদ্দিন ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
অপর আসামিরা হলেন লাল রৌবত বম প্রকাশ আপেল, লাল লম থার বম প্রকাশ আলম, মিথুসেল বম প্রকাশ আমং, লাল রুয়াত লিয়ান বম ও ভানলাল বয় বম।
বান্দরবান চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক ফজলুল হক জানান, আসামিদের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে পুলিশ। শুনানি শেষে বিচারক আসামিদের ফের কারাগারে পাঠান। রুমা-থানচিতে ব্যাংক ডাকাতি, হামলা, লুট ও ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরণের দায়ে গ্রেফতার এ পর্যন্ত ৭৮ জনকে আদালতের নির্দেশনায় বান্দরবান কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।
 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ