খুলনা | শুক্রবার | ২১ জুন ২০২৪ | ৭ আষাঢ় ১৪৩১

কোকো স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

টাইব্রেকারে সবুজ দলের কাছে ৪-২ গোলে লাল দল পরাজিত

খবর বিজ্ঞপ্তি |
১২:৫১ এ.এম | ১০ জুন ২০২৪


বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী বেগম সেলিমা রহমান বলেছেন, আরাফাত রহমান কোকো বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গণে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছেন। আজ ক্রীড়া সংগঠনগুলো এতো শক্তিশালী হওয়ার পাশাপাশি দেশ-বিদেশে আন্তর্জাতিকভাবে ক্রীড়া জগতে যে সুনাম অর্জন করে চলেছে তার পেছনে আরাফাত রহমান কোকোর বিরাট অবদান রয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন দেশের ক্রীড়াঙ্গণ দলীয়করণমুক্ত ও শক্তিশালী ছিল। কিন্তু বর্তমান আওয়ামী সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর গত ১৫ বছরে ক্রীড়াঙ্গণকে দলীয় ও রাজনীতিকরণ করে ফেলেছে। এরফলে দেশের ক্রীড়াঙ্গনের আজ নাজুক অবস্থা তৈরি হয়েছে। খেলার মাঠ ছেড়ে তরুণ ও যুব সমাজ মাদকে ঝুঁকে পড়েছে।
গতকাল রোববার বিকেলে নগরীর রেলওয়ে স্কুল মাঠে আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২৪ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন টুর্নামেন্টের বিভাগীয় সমন্বয়ক বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির তথ্য সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল।
এদিকে, আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২৪ এর বিভাগীয় পর্যায়ের খেলায় খুলনা বিভাগীয় সবুজ দল জয় পেয়েছে। গতকাল রোববার খুলনা রেলওয়ে মাঠে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে তারা টাইব্রেকারে হারিয়েছে খুলনা বিভাগীয় লাল দলকে। নির্ধারিত সময়ে ম্যাচটি গোলশুন্যেভাবে অমীমাংসিতভাবে শেষ হয়। ফলে ম্যাচের জয়-পরাজয় নির্ধারণ হয় টাইব্রেকারে। টাইব্রেকারে সবুজ দল ৪-২ গোলে লাল দলকে পরাজিত করে। টাইব্রেকার থেকে সবুজ দলের পক্ষে গোল ৪টি করেন এনামুল, আরিফ, তপু ও তারা। লাল দলের পক্ষে গোল ২টি করেন রিপন ও শাকিল। 
খুলনা বিভাগের ১০ জেলা ও একটি মহানগরীকে লাল-সবুজ দলে বিভক্ত করে আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২৪ এর সবুজ দল ও লাল দল গঠন করা হয়। সবুজ দলে খুলনা মহানগর ও জেলা, বাগেরহাট জেলা, নড়াইল জেলা, সাতক্ষীরা জেলা ও যশোর জেলা। সবুজ দলের সমন্বয়ক বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল। লাল দলে ঝিনাইদহ, মাগুরা, মেহেরপুর, কুষ্টিয়া ও চুয়াডাঙ্গা। সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন অধ্যক্ষ সোহরাব আলী।
সবুজ দলে খেলেছেন : জিয়াউর রহমান, তপু, ইমরোজ, বাপ্পি, তপু, রাসেল, তারা, মামুন, আরিফ, নাজমুল, এনামুল, জুলফিকার, রায়হান, মনু, শাহজাহান, সাব্বির, কাবিজ, আকাশ, জামাল ও কৃষ্ণা।  
লাল দলে খেলেছেন : বিষ্ণু, নয়ন, রিপন, সবুজ, মোমিন, হ্যাজি, লিটন, শাকিল, সবুজ, রিজন, টুটুল, প্রতীক, সুমন, রুবেল, সুমন, তানজিল, সোহান, জমির ও জীবন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি’র ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু। খেলায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ও টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব আমিনুল হক, কেন্দ্রীয় বিএনপি’র স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব হোসেন, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, নগর বিএনপি’র আহবায়ক শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আমীর এজাজ খান, বগুড়া-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন, বগুড়ার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ আলম, সাতক্ষীরা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক ইফতেখার আলী, সদস্য সচিব আব্দুল আলিম, বাগেরহাট জেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব মোজাফ্ফার আহম্মেদ আলম, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি’র সভাপতি এমএ মজিদ, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুজ্জামান মনা, নড়াইল জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব শরিফুজ্জামান, মেহেরপুর জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি জাভেদ মাসুদ মিল্টন, যশোর জেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব এড. সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু ও যশোর জেলা বিএনপি’র যুগ্ম-আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন প্রমুখ। খেলার পূর্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মহানগর বিএনপি’র সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ