খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

মোংলাবাসীর স্বস্তির বৃষ্টিতে বাতাসের তীব্রতা উড়িয়ে নিয়েছে কাঁচা ঘর ও বৈদ্যুতিক খুঁটি

মোংলা প্রতিনিধি |
১২:৩৩ এ.এম | ২০ জুন ২০২৪


মৌসুম শুরু হলেও প্রায় মাসব্যাপী বৃষ্টির দেখা নেই মোংলা উপকূলীয় অঞ্চলে। তবে আষাঢ়ের শুরুতে প্রচন্ড রোদ আর তীব্র তাপদাহের মাঝে এক পশলা বৃষ্টিতে একটু হলেও স্বস্তি ফিরলেও বাতাসের তীব্রতায় কয়েকটি কাঁচা ঘর ও বৈদ্যতিক খুঁটি উপড়ে পড়ার খবর পাওয়া গেছে। 
গতকাল বুধবার দুপুরের পর থেকেই হঠাৎ আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয়ে উঠে, শুরু হয় বিদ্যুৎ চমকানো। বেশ কিছুক্ষণ পরই দেখা দেয় মুষলধারে বৃষ্টি। তবে চলমান বৃষ্টির মধ্যে বাতাসের প্রচন্ডতাও ছিল বেশ চোখে পড়ার মতো। বাতাসে শহরতলির মাকড়ঢোন এলাকার হাজিপাড়ার রাজ্জাক খানের বসতঘরটি উড়ে যায়। পুরো ঘরটি উড়ে গিয়ে পাশের মুজিবরের বাড়ির পাশে গিয়ে পড়ে। এতে ঘরের সব মালামাল তছনছসহ বৃষ্টিতে ভিজে বেশ ক্ষতি হয়। পরিবারটি এখন খোলা আকাশের নিচে বৃষ্টিতে ভিজছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এছাড়া বৈদ্যতিক খুঁটি উপড়ে পড়ারও খবর পাওয়া গেছে। 
বাতাস ও বৃষ্টির স্থায়িত্ব ছিল প্রায় দেড় ঘন্টা। তবুও ক’দিনের তীব্র তাপদাহের পর স্বস্তি আসে বৃষ্টিতে। অবশেষে বৃষ্টি থেমে গেলেও এ অঞ্চল জুড়ে মেঘ- রোদ্দুরের লুকোচুরি খেলায় জনজীবনে একটুখানি ভোগান্তি কমেছে। তবে আকাশ এখনও মেঘাচ্ছন্ন। হঠাৎ এ বৃষ্টিতে বন্দরে অবস্থানরত দেশ-বিদেশী বাণিজি্িযক জাহাজের পণ্য খালাস-বোঝাইয়ে কোন ব্যাঘাত হয়নি বলে জানায় বন্দরের হারবার বিভাগ। এছাড়া শুরু হওয়া এ বৃষ্টি আরো দু’একদিন থাকতে পারে বলে জানায় মোংলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হারুন আর রশিদ।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ