খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

যে কারণে প্রিয় নবী বৃক্ষরোপণে উৎসাহ দিয়েছেন

খবর প্রতিবেদন |
১২:২০ এ.এম | ২২ জুন ২০২৪


বৃক্ষরাজি আল­াহ তাআলার বিশেষ নিয়ামতগুলোর অন্যতম। গাছপালা ও নানা রকম ফলদ বৃক্ষের মাধ্যমে আল­াহ তাআলা বান্দাকে জীবনোপকরণের উপাদান দান করে থাকেন এবং বৃক্ষরাজি দিয়ে আল­াহ এই পৃথিবীকে সুশোভিত ও অপরূপ সৌন্দর্যমণ্ডিত করেছেন।
বৃক্ষ সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে আল­াহ তাআলা বলেন, ‘আমি ভূমিকে বিস্তৃত করেছি ও পর্বতমালা স্থাপন করেছি এবং তাতে নয়নাভিরাম সর্বপ্রকার উদ্ভিদ উদ্গত করেছি। আমি আকাশ থেকে কল্যাণময় বৃষ্টি বর্ষণ করি এবং এর দ্বারা উদ্যান ও পরিপক্ব শস্যরাজি উদ্গত করি, যেগুলোর ফসল আহরণ করা হয়। ’ (সুরা : ক্বফ, আয়াত : ৭-৯)
রাসুলুল­াহ (সাঃ) বলেছেন, ‘যদি নিশ্চিত ভাবে জানো যে কিয়ামত এসে গেছে, তখন হাতে যদি একটি গাছের চারা থাকে, যা রোপণ করা যায়, তবে সেই চারাটি রোপণ করবে। ’ (আদাবুল মুফরাদ, হাদিস : ৪৭৯)
রাসুল (সাঃ) কৃষি কাজ ও বৃক্ষরোপণে যার পরনাই উৎসাহিত করেছেন, যাতে উদ্ভিদ বৃদ্ধি পায় এবং সুস্থ পরিবেশ রক্ষা পায়। রাসুল (সাঃ) বলেন, ‘যদি কোনো মুসলিম কোনো গাছ রোপণ করে অথবা ক্ষেতে ফসল বোনে আর তা থেকে কোনো পোকামাকড় কিংবা মানুষ বা চতুষ্পদ প্রাণী খায়, তাহলে তা তার জন্য সদকা হিসেবে গণ্য হবে। ’ (বুখারি, হাদিস : ২৩২০, মুসলিম, হাদিস : ৪০৫৫)।
বৃক্ষরোপণ ও পরিচর্যায় শুধু সওয়াব অর্জিত হয় না, পরিবেশও রক্ষা পায়।
রাসুলুল­াহ (সাঃ) বৃক্ষরোপণের প্রতি সাহাবিদের উৎসাহ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোনো বৃক্ষ রোপণ করে, আল­াহ তাআলা এর বিনিময়ে তাকে ওই বৃক্ষের ফলের সমপরিমাণ প্রতিদান দান করবেন। ’ (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ২৩৫৬৭)
বিনা প্রয়োজনে বৃক্ষনিধনে রাসুল (সাঃ)-এর হুঁশিয়ারি : বৃক্ষ পরিবেশ শান্ত ও মনোমুগ্ধকর রাখে। বৃক্ষ আমাদের বাসযোগ্য পরিবেশ গঠনে সহায়তা করে। তাই তা অহেতুক কর্তন করা কোনো বিবেকবান মানুষের কাজ হতে পারে না। রাসুলুল­াহ (সাঃ) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি বিনা প্রয়োজনে গাছ কাটবে আল­াহ তার মাথা আগুনের মধ্যে নিক্ষেপ করবেন। ’ (আবু দাউদ, হাদিস : ৫২৪১)
গাছ যদি এমন স্থানে হয়, যার ফলে মানুষের চলাচল কষ্টকর হয়, পরিবেশ ও ঘরবাড়ির জন্য ক্ষতিকর হয় এবং মানুষের প্রয়োজনে কাটার প্রয়োজন হয়, তাহলে গাছ কাটতে কোনো অসুবিধা নেই। সূত্র : বাংলানিউজ অনলাইন

প্রিন্ট

আরও সংবাদ