খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

প্রাকৃতিক রক্ষাব্যুহ সুন্দরবনের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে

|
১২:০৪ এ.এম | ০৮ জুলাই ২০২৪


দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রাথমিক ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণের খসড়া হিসাবে প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা বলে জানা গেছে। সময়ের সাথে সাথে এই ক্ষয়ক্ষতি আরও বাড়বে সেটা অনুমেয়। তবে শুধুমাত্র আর্থিক মানদন্ডে আমাদের উপক‚লীয় প্রাকৃতিক সুরক্ষাব্যুহ সুন্দরবনের ক্ষতিসহ সামগ্রিকভাবে ক্ষয়ক্ষতি পরিমাপ করা সম্ভব নয়। প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে এই ক্ষতির অংক লক্ষ লক্ষ কোটি টাকার চেয়ে বেশি। 
একথা অনস্বীকার্য যে, উপক‚লীয় জনগোষ্ঠীকে লড়াই-সংগ্রাম করে টিকে থাকতে মাতৃস্নেহে আগলে রেখেছে রক্ষাকবচ সুন্দরবন। প্রকৃতির এই অপূর্ব উপহারের জন্য এখন পর্যন্ত উপক‚লীয় শতভাগ মানুষ উদ্বাস্তু হয়নি। তা না হলে এতদিন উপক‚লীয় সব জমিজমা সহায়-সম্পদ ছেড়ে এসব মানুষের পাড়ি দিতে হতো অন্যত্র। তাই প্রকৃতির আশীর্বাদ এই সুন্দরবনকে রক্ষা করার জন্য সর্বাত্মক অগ্রাধিকার দিতে হবে। স্থানীয় জনগণের পাশাপাশি জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুন্দরবন রক্ষায় যথোপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে হবে। বিগত দেড় দশকে দেশে বেশ কিছু মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে সরকার উন্নয়নের রোল মডেল প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছে। পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, বঙ্গবন্ধু ট্যানেল এখন বাস্তবে রূপ নিয়েছে। অবকাঠামোগত এসব উন্নয়নে সামাজিক-অর্থনৈতিক গুরুত্ব থাকলেও উপক‚লীয় প্রাকৃতিক প্রতিরক্ষা, সুন্দরবন, উপক‚লীয় সবুজ বেষ্টনী, ভেড়িবাঁধের যথাযথ উন্নয়ন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার গুরুত্ব উক্ত মেগা প্রকল্পসমূহের চেয়ে কোনো অংশে কম নয়। কেননা, আমাদের সম্পদকে সুরক্ষা করাই প্রথম কর্তব্য। যে সম্পদ আমাদের উপক‚লীয় জনপদকে বাঁচিয়ে রাখার পাশাপাশি বৈশ্বিক উষ্ণায়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবকে প্রশমিত করতে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছে। 
সুন্দরবন বাঁচলে উপক‚ল বাঁচবে। উপক‚ল না বাঁচলে সারাদেশে বিপর্যয় দেখা দেবে। সুন্দরবন সুরক্ষার পাশাপাশি উপক‚লের জীবন-জীবিকার উন্নয়নে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। সুন্দরবনকে টিকিয়ে রাখতে সরকার দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণের পাশাপাশি সম্ভাব্য সব পদক্ষেপ নিতে হবে। 
সুন্দরবন সুরক্ষায় সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে। প্রতি বছর বঙ্গোপসাগরে এক বা একাধিক ঘূর্ণিঝড় উৎপন্ন হওয়ার পূর্বাভাস রয়েছে। এসব অনাগত ঘূর্ণিঝড় বা জলোচ্ছ¡াস মোকাবেলায় সুন্দরবনকে প্রস্তুত রাখা জরুরি।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ