খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

টেস্ট দলের প্রস্তুতি : চট্টগ্রামে হবে দু’টি তিনদিনের ম্যাচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক |
১১:৫২ পি.এম | ০৯ জুলাই ২০২৪


আগামী আগস্টে পাকিস্তানের সঙ্গে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ। রাওয়ালপিন্ডি এবং করাচিতে অনুষ্ঠিত হবে এই ২ টেস্ট ম্যাচ। যার প্রথমটি শুরু ২১ আগস্ট এবং পরের টেস্ট শুরু ৩০ আগস্ট। পাকিস্তানের সাথে টিম বাংলাদেশের টেস্ট সিরিজের আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি শুরু হবে আগামী ২০ জুলাই থেকে এবং সে অনুশীলন ক্যাম্প হবে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে।
ওই ক্যাম্পের জন্য কী প্রাথমিক দল ঘোষণা করা হবে? হলে সে দল কতজনের? তাতে কারা কারা থাকবেন? নাকি একবারে টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণা হবে এবং সেই দলই জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবে? সে সব কৌতূহলি প্রশ্ন ক্রিকেট অনুরাগি তথা বাংলাদেশ সমর্থকদের মনে উঁকি-ঝুঁকি দিচ্ছে।
বিসিবি থেকে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোন সুস্পষ্ট নির্দেশনা দেয়া না হলেও সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা গেছে, আগে একটা ২৫-৩০ জনের বহর চট্টগ্রামে আবাসিক ক্যাম্পে অংশ নেবে। এরপর সেখান থেকে মূল টেস্ট স্কোয়াড সাজানো হবে।
যেহেতু ক্রিকেটাররা বেশ কিছুদিন দীর্ঘ পরিসরের খেলার মধ্যে নেই। তাই তাদের ম্যাচ প্র্যাকটিসের কথা চিন্তা করে চট্টগ্রামে ২টি তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজনের চিন্তা ভাবনা চূড়ান্ত এবং পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগে ক্রিকেটাররা দু’টি তিনদিনের ম্যাচ খেলবেন। ক্রিকেট অপারেশন্স তথা বিসিবি এবং টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্র আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
এখন প্রশ্ন হলো, কারা কারা ওই দু’টি তিনদিনের ম্যাচে অংশ নেবেন? নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে, যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ ক্রিকেট খেলায় ব্যস্ত সাকিব আল হাসান আর এলপিএল খেলতে শ্রীলঙ্কায় থাকা মোস্তাফিজ, তাসকিন, শরিফুল আর তাওহিদ হৃদয় ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াডের বাকি ১০ জন (স্ট্যান্ডবাই আফিফ হোসেন ধ্র“ব ও হাসান মাহমুদসহ) থাকবেন চট্টগ্রামের আবাসিক অনুশীলন ক্যাম্পে।
এছাড়া যারা বেঙ্গল টাইগার্সের হয়ে এইচপির ক্যাম্পে লাল বলে প্রায় দুই মাসের বেশি সময় ধরে অনুশীলন করছেন, তাদের বড় অংশটাও চট্টগ্রামে টেস্ট দলের আবাসিক ক্যাম্পে যোগ দেবেন।
এইচপি’র লাল বলে অনুশীলনে থাকা সেই বহরে আছেন মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, মেহেদি হাসান মিরাজ, সাইফ হাসান, খালেদ আহমেদ, তাইজুল ইসলামসহ আরও ২৫ জন ক্রিকেটার।
তবে সবাই টেস্ট দলের ক্যাম্পে থাকবেন না। কেউ কেউ এইচপি’র হয়ে অস্ট্রেলিয়া সফরে চলে যাবেন। নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবর, এইচপি’র সাথে অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট দলের কয়েকজন ক্রিকেটারকে পাঠানোর চিন্তা ভাবনা চলছে।
জানা গেছে, কোনো সিনিয়র ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটার নন, মাহমুদুল হাসান জয়, জাকির হাসান, শাহাদাত হোসেন দিপুর মত তরুণ সম্ভাবনাময় ক্রিকেটারকে এইচপির হয়ে দীর্ঘ পরিসরের ম্যাচ খেলতে অস্ট্রেলিয়া পাঠানো হবে। তারা অস্ট্রেলিয়ায় পাকিস্তান ‘এ’ দলের সাথে দু’টি চারদিনের ম্যাচ খেলে দেশে ফিরবেন এবং এরপর টেস্ট দলের অনুশীলনে যুক্ত হবেন।
অনেকেরই ধারণা বাংলাদেশ জাতীয় দল গত কয়েক মাস শুধু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট নিয়েই ব্যস্ত সময় কাটিয়েছে। প্র্যাকটিসটাও করেছে সাদা বলে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের কথা মাথা রেখে।
আসলে তা নয়, টেস্ট দলের যে সব ক্রিকেটার আবার টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেও অপরিহার্য-সেই লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, তাসকিন, শরিফুল প্রমুখ ক্রিকেটার ছাড়া মুশফিক, মুমিনুল, সাদমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল, মাহমুদুল হাসান জয়, জাকির হাসান, শাহাদাত হোসেন দিপু ও খালেদ আহমেদসহ ২৫ ক্রিকেটার ২ মাসের বেশি সময় ধরে টাইগার্সের ক্যাম্পে থেকে লাল বলে অনুশীলন করছেন। এরপর ২০ জুলাই থেকে তারা আবার জাতীয় দলের ব্যানারে লাল বলে প্র্যাকটিস করবেন। ২টি তিন দিনের ম্যাচও খেলবেন।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ