খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

মাঠে গরু আনতে গিয়ে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণের শিকার, আওয়ামীলীগ নেতার নামে মামলা

মোংলা প্রতিনিধি |
০১:৪৫ এ.এম | ১১ জুলাই ২০২৪


মোংলায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে গোলাম শেখ নামের এক আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে। মোংলার চিলা ইউনিয়নের দক্ষিন হলদিবুনিয়ার ফেলুরখন্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রতিবন্ধী কিশোরীর বড় ভাই সাদ্দাম হোসেন বাদি হয়ে বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে মোংলা থানায় মামলা দায়ের করেণ। ঘটনার পর পরই অভিযুক্ত গোলাম শেখ পালিয়ে যাওয়ায় এখনো তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত গোলাম শেখকে গ্রেফতার অভিযান চলমান।

মামলা সুত্রে ও ভুক্তভোগীর স্বজনরা জানায়, ১৫ বছর আগে পিতা আঃ রব শেখে তাদের ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ায় ছেলে সাদ্দাম হোসেন মা ও বোনদের নিয়ে মোংলার পুর্ব চিলা ইউনিয়নের গাববুনিয়া এলাকায় বসবাস করেণ। ভাই সাদ্দাম ছাড়া বাকি ৩ বোনই বাক-প্রতিবন্ধী। গত রবিবার দুপুরে হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হলে মাঠে গরু আনতে যায় চোট বোন প্রতিবন্ধী কিশোরী (২২)। গরু নিয়ে পার্শবতী একটি চিংড়ি ঘেরের পাশ দিয়ে আসার সময় চিংড়ি মাছের ঘেরে থাকা গোলাম শেখ তাকে টেনে হেঁচড়ে ঘেরের গৈ ঘরে (মাছ পাহারার ঘর) নিয়ে ধর্ষন করে বলে অভিযোগ করেন ভাই সাদ্দাম শেখসহ স্থানীয়রা। এসময় তার চিৎকারে পার্শবর্তী লোকজন ছুটে আসলে দৌড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত গোলাম শেখ।

গোলাম শেখ উপজেলার দক্ষিন হলদিবুনিয়া ফেলুর খন্ড এলাকার মৃত নুরু শেখ’র ছেলে। সে মোংলা উপজেলা চিলা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি।

ঘটনার পর থেকে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ায় এখনও তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি পলিশ। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। গোলাম শেখ এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় এমন ঘটনার বহু অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে কিন্ত কেউ তার এ কর্মকান্ডে প্রতিবাদ করতে পারছেনা। অসহায় প্রতিবন্ধীর কিশোরীর প্রতি এমন ঘটনায় বিচার ও কঠোর শাস্তির দাবী এলাকাবাসীর।

মোংলা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার বলেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শন সহ থানায় মামলা নেয়া হয়েছে, তবে পুলিশ আসার খবর পেয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে আসামী গোলাম শেখকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানায় পুলিশের এ কর্মকর্তা।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ