খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

পাকিস্তানে যাবে না ভারত, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিও হাইব্রিড মডেল!

ক্রীড়া প্রতিবেদক |
০২:৩৫ পি.এম | ১১ জুলাই ২০২৪


সাত বছর পর বসছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসর। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানের মাটিতে আইসিসির অন্যতম জমজমাট টুর্নামেন্টটি শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। ইতোমধ্যে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সম্ভাব্য সূচি আইসিসির কাছে পাঠিয়ে দিয়েছে পিসিবি। তবে ভারত টুর্নামেন্টটি খেলতে পাকিস্তানে যাবে কি না এ নিয়ে সংশয় ছিল গোড়া থেকেই।

সর্বশেষ এশিয়া কাপেরও আয়োজক ছিল পাকিস্তান। কিন্তু ভারতের আপত্তির কারণে শেষ পর্যন্ত হাইব্রিড মডেলে ভারতের ম্যাচগুলো আয়োজন করা হয় শ্রীলঙ্কার মাটিতে। এবারও পাকিস্তানে না যাওয়ার সিদ্ধান্তে ভারত অনড় থাকছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে। পাকিস্তানে দল পাঠাবে না ভারত, নিরপেক্ষ ভেন্যু হিসেবে অন্য কোথাও ম্যাচ খেলতে চায় তারা। বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকেও বিষয়টি জানানো হবে আইসিসিকে।

বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘আইসিসির কাছে বিসিসিআই সরকারিভাবে জানাবে যাতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তাদের ম্যাচ দুবাই অথবা শ্রীলঙ্কায় দেওয়া হয়।’ এর আগে এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তানে যায়নি ভারত। ফলে রোহিত শর্মাদের ম্যাচ নিরপেক্ষ ভেন্যুতে করেছিল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল। এবার আইসিসির কাছেও একইরকম আবেদন জানাতে চলেছে বিসিসিআই। সেক্ষেত্রে দুবাই বা শ্রীলঙ্কায় ম্যাচ খেলতে রাজি তারা।

শেষ এক দশকেরও বেশি সময় ধরে ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বন্ধ রয়েছে। দুই দেশের রাজনৈতিক টানাপড়েনের কারণে আইসিসি বা এসিসির কোনো টুর্নামেন্ট ছাড়া দুই দলের ম্যাচ দেখা যায় না। পাকিস্তান বিশ্বকাপ খেলতে ভারত সফর করলেও নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকছে বিসিসিআই।

এর আগে পাকিস্তান সফরে যেতে একটি শর্তের কথা জানিয়েছিলেন বিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি রাজিব শুক্লা। দেশটির সংবাদসংস্থা এএনআইকে তিনি বলছিলেন, ‘চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলতে যাওয়া প্রসঙ্গে আমরা একটা কথাই বলতে পারি, সরকার যা বলবে আমরা তাই করব। সরকার অনুমতি দিলে অবশ্যই টিম পাঠানো হবে। সিদ্ধান্ত নির্ভর করছে সরকারের অনুমতির ওপরই।’

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) চাচ্ছে, ভারতীয় দল দেশটিতে খেলতে যাক। আইসিসির কাছে পাঠানো খসড়া সূচিতে তিনটি ভেন্যু বেছে নিয়েছে বাবর আজমের দেশ। এর মধ্যে ভারতের ম্যাচ রাখা হয়েছে লাহোরে। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে ভ্রমণ সংক্রান্ত নিরাপত্তা ঝুঁকি এড়ানো এবং ভারতীয় সীমান্তের কাছাকাছি শহরটির অবস্থান হওয়ার দেশটির ক্রিকেট ভক্তদের যাতায়াত সহজ হওয়ার কথা। ওই একই ভেন্যুতে টুর্নামেন্টের ফাইনালও হওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে, এশিয়া কাপের মতো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে ভারত নিজেদের অবস্থানে অনড় থাকলে বেশ চাপেই পড়তে হবে পাকিস্তানকে। ভারত যদি পাকিস্তানে যেতে না চায়, সেক্ষেত্রে বাধ্য হয়েই হয়তো আইসিসিকে ম্যাচের ভেনু বদলাতে হবে। তবে এবার সব ম্যাচ নিজেদের মাটিতে আয়োজন করতে বদ্ধপরিকর পিসিবির চেয়ারম্যান মহসীন নকভী। 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ