খুলনা | সোমবার | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮

করোনার সংক্রমণ কমেছে : স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে

|
১২:২৩ এ.এম | ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেশে করোনা ভাইরাসের শনাক্তের হার ৭ শতাংশে নেমে এসেছে। গত শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা সংক্রান্ত সমন্বিত নিয়ন্ত্রণকেন্দ্র থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। করোনার সংক্রমণ এখন নিম্নগামী তবে এতে স্বস্তির কোনো অবকাশ নেই। কেননা গত বছরের মার্চে দেশে করোনা আঘাত হানার পর থেকে বাংলাদেশে সংক্রমণ ও মৃত্যুর প্যাটার্ন ভারতের মতোই। স¤প্রতি ভারতের একটি প্রতিবেদনে দেশটির বিশেষজ্ঞদের একটি প্যানেল তিনটি পরিস্থিতির পূর্বাভাস দিয়েছে। সেগুলো অনুযায়ী, তৃতীয় ঢেউয়ের কারণে ভারতে অক্টোবর মাসে প্রতিদিন তিন লাখ ২০ হাজার, পাঁচ লাখ এবং দুই লাখ মানুষের করোনা শনাক্ত হতে পারে। আমাদের কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবিলার অভিজ্ঞতা স্বস্তিদায়ক নয়। অনেক সরকারি হাসপাতালে আইসিইউ ছিল না, যেখানে ছিল সেখানেও অক্সিজেন সরবরাহ ছিল অপর্যাপ্ত। মনে রাখা দরকার, স্বাস্থ্য খাতে বিগত বছরগুলোতে বরাদ্দের কমতি হয়নি এবং এ খাতে দুর্নীতিও ছিল দেশের অন্যতম আলোচিত বিষয়। আমাদের স্বাস্থ্যসেবার সক্ষমতা এতটাই নাজুক যে, রোগীর সংখ্যা কিছুটা বাড়লেই সরকার সামাল দিতে পারে না। ভারতের প্রখ্যাত কার্ডিয়াক সার্জন ডাঃ দেবী শেঠি এক সম্পাদকীয়তে লিখেছেন, ‘প্রথম ঢেউয়ে কোভিড মূলত বয়স্কদের আক্রান্ত করে তরুণরা রক্ষা পায় তখন। কিন্তু দ্বিতীয় ঢেউ বিপুলসংখ্যক তরুণকে আক্রান্ত করেছে। তৃতীয় ঢেউয়ে শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কারণ বেশিরভাগ প্রাপ্তবয়স্ক ইতোমধ্যেই সংক্রমিত বা টিকা পেয়েছেন। শিশুদের বিষয়টি আমাদেরও মাথায় রাখতে হবে। গত পরশু থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়েছে। তাই যদি সংক্রমণ বাড়ে সে ক্ষেত্রে হাসপাতাল ও আইসিইউ প্রস্তুত রাখতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে নিশ্চিত করতে হবে। সেই সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে সরকারকে অবশ্যই কঠোর অবস্থান নিতে হবে।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ