খুলনা | রবিবার | ১৪ অগাস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

কেন্দ্রের নির্ধারিত সময়ে পূর্ণতা পায়নি নগর ও জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি!

আশরাফুল ইসলাম নূর |
০১:১৪ এ.এম | ০৩ জানুয়ারী ২০২২

কেন্দ্র নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে নিজেদের পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে ব্যর্থ হয়েছে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি। গত ১৪ ডিসেম্বর দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব এড. রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে আংশিক আহবায়ক কমিটির তিনজনের সুপারিশসহ সর্বোচ্চ ৫১ সদস্যের পুর্ণাঙ্গ আহবায়ক কমিটি অনুমোদনের জন্য কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। 

এর আগে গত ৯ ডিসেম্বর খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপিতে তিন সদস্য বিশিষ্ট পৃথক আংশিক আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র। ঘোষিত ‘সুপার থ্রি’র এ সংক্ষিপ্ত কমিটি থেকে বাদ পড়েন সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনিসহ তাদের অনুসারিরা। এর পর ১২ ডিসেম্বর খুলনা প্রেসক্লাবে প্রেসব্রিফিং করে আহবায়ক কমিটি পুনঃবিবেচনার দাবি জানান নগর বিএনপি’র সদ্য সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গত ১৩ ডিসেম্বর দলীয় শৃঙ্খলা-ভঙ্গের অভিযোগে শোকজ করা হয় মঞ্জুকে। পরে ২৫ ডিসেম্বর সাংগঠনিক সম্পাদকের (খুলনা বিভাগ) পদ থেকেও নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে অব্যাহতি দেয় বিএনপি। 
একই সাথে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্র ইসলাম অমিতকে ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। 
এর প্রতিবাদে নগর, থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের সহস্রাধিক নেতা-কর্মী পদত্যাগ করেন। যা খুলনার রাজনীতিতে বিরল ঘটনা। খুলনা বিএনপি’র অভ্যন্তরীণ এ ঘটনা প্রবাহ আঞ্চলিকতা ছাড়িয়ে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম হয় জাতীয় রাজনীতিতেও।

দলীয় সূত্রমতে, জেলা সভাপতি এড. শফিকুল আলম মনাকে আহবায়ক, সাবেক ছাত্র নেতা ও ভিপি তরিকুল ইসলাম জহিরকে সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক ও সাবেক ছাত্র-যুবনেতা শফিকুল আলম তুহিনকে সদস্য সচিব করে মহানগর এবং জেলার সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খানকে আহবায়ক, শেখ আবু হোসেন বাবুকে সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক ও এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পীকে সদস্য সচিব করে জেলা বিএনপি’র আংশিক আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত ৯ ডিসেম্বর বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব এড. রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে পৃথক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

খুলনা বিএনপি’র এ গৃহদাহ আঞ্চলিকতা ছাড়িয়ে আলোচনা-সমালোচনার উষ্ণতা ছড়ায় জাতীয় রাজনীতিতেও।

খুলনা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির একাধিক সূত্র জানায়, গত ১৪ ডিসেম্বর সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব এড. রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে পরবর্তী ১৫দিনের (অর্থাৎ ৩০ ডিসেম্বর) মধ্যে আংশিক আহবায়ক কমিটির তিনজনের সুপারিশসহ সর্বোচ্চ ৫১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ আহবায়ক কমিটি অনুমোদনের জন্য কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে জাতীয় ও কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি থানা, ওয়ার্ড, নগর ও জেলার মধ্যে একাধিক সমন্বয় ও প্রস্তুতি সভা করেছে আহবায়ক কমিটি। গত ৩০ ডিসেম্বর দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে দলটি।

নগর বিএনপি’র সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন বলেন, “গত ১৮ ডিসেম্বর জুম মিটিংয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে খুলনা বিএনপি’র সামগ্রিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি পূর্ণাঙ্গ আহবায়ক কমিটি গঠনের সময়সীমা বাড়িয়ে দিয়েছেন। এর মধ্যে নগর বিএনপি’র আহবায়ক শফিকুল আলম মনা অসুস্থ্য হয়ে পড়ায় সবকিছু গুছিয়ে নিতে একটু বিলম্ব হচ্ছে।”

জেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব এস এম মনিরুল হাসান বাপ্পী বলেন, “শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস, বিজয়ে সুবর্ণ জয়ন্তীসহ জাতীয় এবং দলের কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি জেলা বিএনপি পুনর্গঠনে কাজ চলছে। দলের ত্যাগী-পরীক্ষিত প্রবীণ ও নবীনের সমন্বয়ে আন্দোলনমুখী কমিটি করা হবে। ভালো কিছুর জন্যই তো একটু সময় লাগবে।”

প্রিন্ট

আরও সংবাদ