খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২৬ মে ২০২২ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

কালিগঞ্জে কোচিং না করায় শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মারপিট

কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি |
০৩:২১ পি.এম | ১৪ মে ২০২২


কোচিং না করায় কালিগঞ্জের নলতা আইএইচটি ম্যাটস ইনস্টিটিউটে সোলায়মান হোসেন নামে এক শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা আইএইচটি ম্যাটস এন্ড ইনস্টিটিউটে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই আহত শিক্ষার্থীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার হানিফ উদ্দিনের ছেলে। তিনি আইএইচটির তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

একই বর্ষের শিক্ষার্থী রিপন জানান, রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাঈদ হাসানের নির্দেশে রাত ১০টার দিকে সোলায়মানকে হোস্টেল থেকে ডেকে নিয়ে যায় রশিদ, নাহিদ ও রানা। তাদের মধ্যে নাহিদ ও রশিদ আইএইচটির ছাত্র এবং রানা ম্যাটসের ছাত্র। শিক্ষকের কাছে নেয়ার পর প্রথমে সোলাইমান হোসেনকে রড দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়। এরপর তার সারা শরীরে নির্দয়ভাবে পেটানো হয়। পরবর্তীতে গুরুতর আহত অবস্থায় আমরা সোলায়মানকে উদ্ধার করে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। সোলাইমান হোসেন বর্তমানে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনার পর থেকে নির্যাতনকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বলে জানান তিনি।

এদিকে নির্যাতনের বিষয়টি জানতে পেরে শনিবার সকাল ১০ টার দিকে আহত শিক্ষার্থীকে দেখতে দেবহাটার সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান সাতক্ষীরা-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী অধ্যাপক আ ফ ম রুহুল হক। এ সময় তিনি ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রæত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

এ বিষয়ে জানার জন্য রেডিওলজি বিভাগের শিক্ষক সাঈদ হাসানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।
 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ