খুলনা | শুক্রবার | ০১ জুলাই ২০২২ | ১৭ আষাঢ় ১৪২৯

হিন্দি কেন ভারতের রাষ্ট্রভাষা হবে, প্রশ্ন আয়ুষ্মানের

খবর বিনোদন |
১২:৫৮ পি.এম | ২৩ মে ২০২২


কিছুদিন আগেই ভাষা নিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন অভিনেতা অজয় দেবগণ ও কিচ্চা সুদীপের মধ্যে। অজয় বলেছিলেন হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা করা উচিত। আর তা নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক। প্রায় কোনো তারকাকেই তার পক্ষ নিতে দেখা যায়নি। এবার সেই বিষয়ে মুখ খুললেন আয়ুষ্মান খুরানা।

উত্তর পূর্ব ভারতের রাজনৈতিক অবস্থা ও সমস্যা নিয়ে আয়ুষ্মান খুরানার পরবর্তী ছবি ‘অনেক’। রাজনৈতিক এই অ্যাকশন থ্রিলার পরিচালনা করেছেন অনুভব সিনহা। সেই ছবির প্রচারে কলকাতায় গিয়েছিলেন আয়ুষ্মান। দীর্ঘদিন ধরে উত্তর পূর্ব ভারতে চলছে রাজনৈতিক অস্থিরতা। তাই আয়ুষ্মান প্রশ্ন তুলে বলেন, কেউ শান্তি চায় না বলেই কি এত বছরেও এত ছোট সমস্যার সমাধান হলো না? পাশাপাশি এই ট্রেলারে ফের উঠে এল হিন্দি ভাষা বিতর্কও।

ছবির মুখ্য চরিত্রই প্রশ্ন তুলছেন যে হিন্দিই কি ঠিক করে দেবে কে উত্তর ভারতের কে দক্ষিণ ভারতের? উত্তর-দক্ষিণ ভুলে কবে আমাদের পরিচয় হবে শুধুমাত্র ভারতীয়? প্রশ্ন পর্দার আয়ুষ্মানের। গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা বানানোর প্রসঙ্গে তিনি কী মনে করেন?

আয়ুষ্মান জানান, ভারতের প্রত্যেক ভাষাকেই রাষ্ট্রভাষা বানিয়ে দেওয়া উচিত। হিন্দিই শুধু কেন? তাহলে যারা ছোট থেকে হিন্দিতে কথা বলে না তারা বঞ্চিত হবে, তাদের নতুন ভাষা শিখতে হবে। সেটা ঠিক নয়। এছাড়া আমরা কখনোই কোনো শুদ্ধ ভাষা বলি না। উদাহরণস্বরূপ যখন হিন্দি বলি তার সঙ্গে অনেক উর্দু শব্দ মিশে থাকে। যদি উত্তরপ্রদেশে শুট করি তাহলে হিন্দি-উর্দু-ব্রজ ভাষার মিশ্রণ থাকে। মুম্বাইয়ে শুট করলে মারাঠি সংলাপ জুড়ে যায়। অতএব কখনোই আমরা শুদ্ধ ভাষায় কথা বলি না। এখনো আমরা হিন্দি ও ইংরেজি মিশ্রিত কথা বলছি। যখন আমরা একসঙ্গে তিনটি ভাষা বলছি তাহলে রাষ্ট্রভাষা একটা কেন?

প্রিন্ট

আরও সংবাদ