খুলনা | রবিবার | ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে কথা বলতে চাই না: মির্জা ফখরুল

খবর প্রতিবেদন |
০২:৫৭ পি.এম | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে কোনও কথা বলতে চাই না। কারণ আমাদের পেছনে একটা তিক্ত এবং হতাশার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আমরা প্রত্যেকবার আশা করেছি যে এবার বুঝি কিছু নিয়ে আসবেন। কিন্তু প্রত্যেকবার দেখেছি দিয়ে এসেছেন, নিয়ে আসেননি। সুতরাং এই একটাই কমেন্ট আগে ঘুরে আসুক। কী নিয়ে এসেছে আমরা দেখি। তারপর কমেন্ট।’

আজ সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ হলে এম. সাইফুর রহমান এর ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক স্মরণসভা তিনি এসব কথা বলেন। এম. সাইফুর রহমান স্মৃতি পরিষদ এই সভার আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, 'বিএনপির সময় দেশের অর্থনৈতিক স্থির ছিল। এম. সাইফুর রহমান স্থায়ী টেকসই এ বিশ্বাসী ছিলেন। এখন স্থায়ী টেকসই বাদ দেন। এখন ভিক্ষা চাই না, কুত্তা সামলাও এর মতো অবস্থা হয়ে গেছে। কারণ এরা চুরি করতে করতে এমন অবস্থায় চলে গেছে যে এখন আর ফিরে আসতে পারছে না। এই চুরি মধ্য দিয়েই এদের আবার যাওয়ার চেষ্টা করতে হচ্ছে।'

মেগা উন্নয়নের নামে দূর্নীতি এরকম অর্থনীতি এম. সাইফুর রহমান বিশ্বাস করতেন না মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, 'সাইফুর রহমান বিশ্বাস করতেন সরকার কোনও ব্যবসা করবে না। ব্যবসা করবে ব্যবসায়ীরা, সরকার নিয়ন্ত্রণ করবে পলিসি দিবে, ব্যবসা করার সুযোগ দেবে।'

এম. সাইফুর রহমানের মৃত্যুতে শুধু বিএনপি নয়, বাংলাদেশ একটি যোগ্য সফল অর্থমন্ত্রীকে হারিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব।

স্মরণ সভা সভাপতির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, 'এম সাইফুর রহমান ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য চিন্তা করতেন৷ তিনি শিক্ষা চিকিৎসা খাতের জন্য উদার ছিলেন। কিন্তু রিজার্ভ খরচ করার ব্যাপারে তিনি বেশ কার্পণ্য করতেন। সেসম আমরা অনেকেই সমালোচনা করেছি - এই রিজার্ভ রেখে লাভ কী? অথচ আজ দেখুন এই সরকার যেহেতু তারা ভবিষ্যত চিন্তা করে না। তার জন্য তারা খরচ যেভাবে ইচ্ছা সেভাবে করেছে।’

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহবায়ক আমান উল্লাহ আমানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ