খুলনা | মঙ্গলবার | ০৪ অক্টোবর ২০২২ | ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

“আমি নারী, আমিও পারি”

তানজিলা সুলতানা |
১২:৫২ এ.এম | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২


আমাদের মাঝেই বেড়ে ওঠে সামান্য রক্ত পিন্ড থেকে জন্ম নেয় মানব সন্তান। দীর্ঘ ৯ মাস নানা প্রতিকুল অবস্থার মধ্য থেকে নিজের শরীরে বেড়ে ওঠা মানব সন্তানকে দেখাতে পারি পৃথিবীর আলো,  আমরা এই নারীরা।
অতি সামান্য রক্তপিন্ড থেকে সঞ্চিত সেই মানব সন্তানকে পেটে ধারন করে তিলে-তিলে নিজের শরীরের মধ্যেই বড় করে একজন নারী, তীব্র ব্যথা সহ্য করে ফুটফুটে একটি সন্তান জন্ম দেন মা। সেই সন্তান জন্মের পর থেকে নিজের (নারী) দিকে না তাকিয়ে তাকে (সন্তান) ভালোবেসে বড় করতে নিরলস প্রচেষ্টা ও অজানা যুদ্ধ। তাহলে আমরা কেন পারবো না নিজের ভেতরে থাকা লুকানো প্রতিভাকে সবার সামনে উপস্থাপন করতে?
আমরা নারীরা হচ্ছি মেয়ে, বোন, স্ত্রী বা একজন মা, তেমনি একজন সেবিকা, ডাক্তার, শিক্ষক, গৃহকর্মী, আয়া, অন্যদিকে একজন উদ্যোক্তা।
সংসার সামলিয়ে যদি একজন মা বাইরে গিয়ে চাকরি করতে পারেন, তাহলে নিজের প্রতিভাকে বিকশিত করতে নিজের উদ্যোগ নিয়ে কাজও করতে পারেন, সেটা হোক ছোট কাজ। পৃথিবীতে কেউই বড় হয়ে জন্ম নেয় না, ছোট থেকে বড় হতে হয়। আমি কোন কাজকেই ছোট মনে করি না। কাজ তো কাজই। ঘরে বসে না থেকে জাগিয়ে তুলুন আপনার সুপ্ত প্রতিভা। নিজেকে তৈরি করুন একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ মানুষ হিসেবে। নিজের একটা পরিচয় গড়ে তুলুন। যে পরিচয়টা হবে একান্তই নিজের। কারো মেয়ে, মা, বোন বা কারো স্ত্রী হিসেবে নয়। সব থেকে বড় কথা বা পরিচয় হচ্ছে আমরা মানুষ। মানুষ হয়ে বাঁচতে চাই। বাঁচতে হবে নিজের আত্ম-মর্যাদায়। আসুন আমরা আওয়াজ তুলি “আমরা নারী, আমরাই পারি”।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ

অন্যান্য

প্রায় ১ মাস আগে