খুলনা | সোমবার | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১১ আশ্বিন ১৪২৮

গ্রামীণফোনকে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের উকিল নোটিশ

খবর প্রতিবেদন |
০৩:০৫ পি.এম | ২৭ জুলাই ২০২১

কিংবদন্তি লেখক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের সৃষ্টি করা চারটি জনপ্রিয় নাটকের চরিত্র অনুমতি ছাড়া বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করায় সেলফোন অপারেটর কোম্পানি গ্রামীণফোনকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন, কন্যা নোভা আহমেদ, শীলা আহমেদ, বিপাশা আহমেদ, পুত্র নুহাশ হুমায়ূন ও ভাই জাফর ইকবালের পক্ষে এ নোটিশ পাঠান আইনজীবী ব্যারিস্টার হামিদুল মিজবাহ। নোটিশে মেধাস্বত্ব লঙ্ঘন করায় আগামী ১৫ দিনের মধ্যে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে।

ব্যারিস্টার হামিদুল মিজবাহ বলেন, কিংবদন্তি লেখক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের সৃষ্ট জনপ্রিয় চারটি নাটকের চরিত্র বাকের ভাই, এলাচি বেগম, সোবহান সাহেব এবং তৈয়ব আলী- কোনো প্রকার অনুমতি ছাড়া বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করে লেখকের মেধাস্বত্ব লঙ্ঘন করার কারণে সেলফোন অপারেটর কোম্পানি গ্রামীণফোনকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন লেখকের পরিবারের সদস্য ও উত্তরাধিকাররা।

আইনজীবী জানান, গ্রামীণফোন ২০২০ সালের জুলাই মাসে ‘কেমন আছেন তারা’ শীর্ষক কয়েকটি পর্বের একটি ধারাবাহিক প্রমোশনাল অনুষ্ঠান প্রচার করে। অনুষ্ঠানটির টাইটেল ছিল ‘গ্রামীণফোন নিবেদিত কেমন আছেন তারা?’ যা গ্রামীণফোনের ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউব চ্যানেল থেকে রিলিজ ও প্রচারিত হয়। অনুষ্ঠানে লেখক হুমায়ূন আহমেদের রচিত চারটি জনপ্রিয় চরিত্র বাকের ভাই (কোথাও কেউ নেই), এলাচি বেগম (অয়োময়), সোবহান সাহেব (বহুব্রীহি) এবং তৈয়ব আলী (উড়ে যায় বক পক্ষী) কে ব্যবহার করা হয়। এ জন্য গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে কোনো প্রকার অনুমতি বা লাইসেন্স নেওয়া হয়নি। এ চারটি চরিত্র ব্যবহার করা পর্বগুলো ৩০ লাখের বেশি ভিউ হয়েছে। প্রচলিত আইনে এ ধরনের চরিত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে অনুমতি নেওয়ার বাধ্যবাধকতা থাকা সত্ত্বেও গ্রামীণফোন তা মানেনি। এতে মেধাস্বত্ব আইন লঙ্ঘন হয়েছে।

আইনি নোটিশে গ্রামীণফোনকে উক্ত মেধাস্বত্ব লঙ্ঘিত পর্বগুলো তিন দিনের মধ্যে অপসারণ করে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের সদস্যদের জানাতে বলা হয়েছে। মেধাস্বত্ব লঙ্ঘনের জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ ১৫ দিনের মধ্যে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের সদস্যদের প্রদান করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান আইনজীবী।

এ বিষয়ে প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন বলেন, হুমায়ূন আহমেদের সৃষ্টি অনেকগুলো চরিত্রের মধ্যে বাকের ভাই, এলাচি বেগম, সোবহান সাহেব এবং তৈয়ব আলী চরিত্রগুলো অত্যন্ত জনপ্রিয়। এসব চরিত্রের অনুমতিবিহীন এবং বাণিজ্যিক ব্যবহার হুমায়ূন আহমেদের মেধাস্বত্ব অধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। হুমায়ূন আহমেদের মেধাস্বত্ব সুরক্ষায় আইনের উপর আস্থা রেখে যা যা করা প্রয়োজন আমরা সব করব।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ

অন্যান্য

প্রায় ৩ ঘণ্টা আগে

অন্যান্য

প্রায় ৬ দিন আগে

অন্যান্য

প্রায় ১৫ দিন আগে