খুলনা | রবিবার | ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

মানুষ খুন করলেও কেউ কিছু বলতে পারবে না: মির্জা ফখরুল

খবর প্রতিবেদন |
০৩:২৮ পি.এম | ২১ নভেম্বর ২০২২


ক্ষমতাকে ধরে রাখতে সরকার স্বেচ্ছাচারিতার আশ্রয় নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে এভাবে তাদের শেষ রক্ষা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। আজ সোমবার (২১ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘মানুষকে এরা মানুষ মনে করে না। এরা মনে করে প্রজা। এখানে যা খুশি তাই করবে তারা। লুট করবে, চুরি করবে, মানুষকে খুন করবে, কেউ কিছু বলতে পারবে না।’

সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিয়ে তিনি বলেন, ‘জনগণ তোমাদের (সরকার) বিচার করবে। জনগণের আদালতে তোমাদের বিচার হবে। কারণ দেশের তোমরা যা ক্ষতি করেছ, স্বপ্নকে ধূলিসাৎ করেছ, জনগণ অবশ্যই তার বিচার করবে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্র ফোরাম ও উত্তরাঞ্চল ছাত্র ফোরাম এই সভার আয়োজন করে। সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘লড়াই শুরু হয়েছে, মানুষ রাস্তায় নেমে গেছে। আমাদের এখন আরও শক্তি সঞ্চয় করে নয়নের, শাওন, আলিমের রক্তের ঋণ পরিশোধ করার জন্য আমাদের প্রস্তুত হতে হবে। আরেকটা মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়েই এদের (সরকার) পরাজিত করতে হবে।’

সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব বলেন ‘আপনি সাধারণ মানুষের কাছে যান, একটা রিকশাওয়ালার কাছে যান, একজন হকারের কাছে যান—প্রত্যেকেই বলবে যে, এই সরকার চলবে না। আমাদের বলতে হবে না। মানুষের একটাই কামনা, এদের হাত থেকে মুক্তি দরকার।’

বিচারকদের পরামর্শ দিয়ে ফখরুল বলেন, ‘বিচারকদের প্রতি সম্মান রেখে বলতে চাই, দয়া করে ন্যায় বিচার করুন। কারণ এ দেশে বহু প্রমাণ আছে, বিচারপতি তোমার বিচার করবে যারা, আজ জেগেছে সেই জনতা। কেউই পার পাবেন না।’ 

প্রিন্ট

আরও সংবাদ