খুলনা | মঙ্গলবার | ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ | ২১ অগ্রাহায়ণ ১৪৩০

লবণ সহনশীল ধানবীজ উৎপাদনে প্রশিক্ষণ পেল উপকূলের কৃষকেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা |
১১:৩৮ পি.এম | ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩


উপকূলে লবণ সহনশীল ধানবীজের সংকট কাটিয়ে উঠতে লিডার্স জলবায়ু সহনশীল দলের সদস্যদের ধানবীজ উৎপাদনের উপর দুই দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে। বুধবার সকাল দশটায় শ্যামনগরের মুন্সীগঞ্জস্থ লিডার্স এর প্রধান কার্যালয়ে ধানবীজ উৎপাদনকারীদের দুই দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়।
লিডার্স এর নির্বাহী পরিচালক মোহন কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে ধানবীজ উৎপাদন ও সংরক্ষণ সতেজীকরণ প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা জেলার বিএডিসির সহকারী পরিচালক মোঃ মনোয়ার হোসেন খাঁন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সাইন্টিফিক অফিসার ড. মোঃ বাবুল আকতার, শ্যামনগর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এস এম এনামুল ইসলাম, লিডার্স এর প্রকল্প সমন্বয়কারী জি এম মোশাররাফ হোসেন, মনিটরিং অফিসার রনজিৎ কুমার মন্ডল প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে মোহন কুমার মন্ডল বলেন, বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন লিডার্স লবণ সহনশীল জাতের ধান কৃষকদের মাঝে বিতরণ করে লবণ সহনশীল ধান চাষে আগ্রহী করার চেষ্টা করছে। কিন্তু সেই ধরণের লবণ সহনশীল ধানের জাত বাজারে পর্যাপ্ত না থাকায় ব্যাপক হারে চাষ করা সম্ভব হয়নি। তাই লিডার্স লবণ সহনশীল ধানবীজ সংরক্ষণে কৃষকদের প্রশিক্ষণ ও প্রণোদনা দিয়ে বীজ সংকট সমাধানে উদ্যোগ নিয়েছে।
প্রধান অতিথি বলেন, উপকূলীয় এলাকায় লবণাক্ততা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই এখানে লবণ সহনশীল জাতের ধান চাষ না করলে ফলন কম হবে। লবণ সহনশীল ধান চাষে কৃষকদের আরও বেশি উৎসাহিত করতে হবে। এজন্য কৃষকদের এ ধরণের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। উপকূলীয় এলকায় ধান উৎপাদনকারীদের এ ধরণের প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য তিনি লিডার্সকে ধন্যবাদ জানান। উপকূলীয় এলকায় লবণ সহনশীল ধান উৎপাদনে এ ধরণের উদ্যোগে বিএডিসির সব ধরণের সহযোগিতা থাকবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ