খুলনা | সোমবার | ১৭ জুন ২০২৪ | ৩ আষাঢ় ১৪৩১

প্রাথমিকের বার্ষিক ছুটির তালিকা সংশোধন করা হোক

|
১২:২১ এ.এম | ২৯ মার্চ ২০২৩


প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর মাধ্যমিকের সমান ছুটির রেওয়াজ ভুলে গিয়ে প্রাথমিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকের মাঝে বিশাল এক ছুটি বৈষম্যের দেয়াল সৃষ্টি করেছে। পরিমার্জিত শিক্ষাক্রমে সব ধরণের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দু’দিন কার্যকর করা হয়েছে। আগে প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিকসহ মাদ্রাসায় বার্ষিক ছুটির সমন্বয় ছিল ৮৫ দিন, যা বর্তমানে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিকে ৭৬ দিন নির্ধারণ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। সেখানে অতীতের সমন্বিত ছুটির রেকর্ড ভেঙে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ছুটি ২২ দিন কমিয়ে মাত্র ৫৪ দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। তার মধ্যে প্রধান শিক্ষকের হাতে তিন দিন সংরক্ষিত ছুটি রাখা হয়েছে। অথচ মুক্তপাঠে পরিমার্জিত শিক্ষাক্রম রূপরেখা-২০২১ বাস্তবায়নের ছুটি বিধিতে ৭৬ দিন উলে­খ আছে।
অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পুরো রমজান মাস ছুটি থাকলেও প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে ৭ এপ্রিল থেকে। রোজা রেখে এ সময় শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা নিতান্তই কষ্টকর। এই রমজানে সবচেয়ে বেশি বিড়ম্বনার শিকার হবেন নারী শিক্ষকরা। সারাদিন রোজা রেখে, নামাজ পড়ে, কোরআন পড়ে, স্বামী-সংসার সামলিয়ে ইফতারি প্রস্তুতি তাঁদের হিমশিম খেতে হয়। ইফতারের পর তারাবির নামাজ আদায় করতে না-করতে আবার সেহরির খাবার প্রস্তুত করতে হয় প্রাথমিকের একজন নারী শিক্ষককে।
প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুধু রমজানের মাসের ছুটির ক্ষেত্রে বৈষম্য করা হয়নি, সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যখন এ বছর ১২ দিন শীতকালীন অবকাশ যাপন করবে, তখন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা মাত্র তিনদিন শীতকালীন অবকাশ যাপনের সুযোগ পাবে। প্রাথমিক শিক্ষকরা ভোকেশনাল ডিপার্টমেন্টের কর্মচারী। ফলে তাঁরা শ্রান্তি বিনোদন, অর্জিত ছুটিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হন। বিনা কারণে ভোকেশনাল ছুটি কমিয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের সামাজিক ও মানসিকভাবে হেয় করা উচিত নয়। তাঁদের মানসিকভাবে অসন্তুষ্ট রেখে কখনও মানসম্মত শিক্ষা অর্জন করা সম্ভব নয়।
কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ, বাস্তবতা অনুধাবন করে প্রাথমিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের কল্যাণে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের সঙ্গে সমন্বয় করে ২০২৩ সালের প্রাথমিকের বার্ষিক ছুটির তালিকা সংশোধন করে ৭৬ দিন নির্ধারণ করা হোক।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ