খুলনা | শুক্রবার | ২১ জুন ২০২৪ | ৭ আষাঢ় ১৪৩১

ইউটিউব ফেসবুক না টিকটক—কোন মাধ্যমে আয় বেশি?

লাইফস্টাইল ডেস্ক |
১২:৩৪ পি.এম | ১২ জুলাই ২০২৩


সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইক এবং ফলোয়ারদের লড়াই ক্রমশ বাড়ছে। ইন্টারনেটে প্রতিদিন নতুন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের আসা এই পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তুলছে। সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সারদের জীবন লাইক এবং ফলোয়ারদের সংখ্যার উপর নির্ভর করে।

একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ইনফ্লুয়েন্সারদের কতটা উপার্জন হবে তা নির্ভর করে তাদের ফলোয়ার সংখ্যা, লাইক এবং ভিউয়ের সংখ্যা এবং প্রতিটি পোস্ট, স্টোরি বা রিলে আসা ভিউ, কমেন্ট ও লাইকের উপর।

আপনি যদি ভাবেন যে বাংলাদেশে ইনফ্লুয়েন্সাররা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলো থেকে কত টাকা আয় করতে পারে। তাহলে আর আপনার চিন্তা করতে হবে না। আপনি এই প্রতিবেদনে ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে কত টাকা আয় করা যায় তা জানতে পারবেন।

ফেসবুক
একটি অন্যতম সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হল ফেসবুক। ফেসবুকে, ইনফ্লুয়েন্সাররা স্পন্সর করা পোস্ট, অ্যাফিলিয়েট লিংক বা লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে উপার্জন করতে পারে। হুটসুইটের মতে, বৈশ্বিক স্তরে, ১ হাজার থেকে ১০ হাজার ফলোয়ারসহ একজন ইনফ্লুয়েন্সার পোস্ট প্রতি ১৭০ ডলার উপার্জন করতে পারেন। কিন্তু যাদের ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার ফলোয়ার আছে তারা ফেসবুকে ২৬৬ ডলার উপার্জন করতে পারে।

ইউটিউব
ইউটিউব থেকে ক্রিয়েটরদের উপার্জনের আটটি বিকল্প রয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম একটি হল ভিউ ভিত্তিক আয়। বস্তুত ১০ হাজার ভিউ এর জন্য ২০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা উপার্জন করতে পারেন। আর ১ লাখ ভিউয়ের জন্য ২০০০ থেকে ৫০০০ টাকা আয় করতে পারবেন। এক মিলিয়ন ভিউয়ের জন্য আপনি ৭০০০ টাকা থেকে ৩০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারেন। ১৫০ মিলিয়নের জন্য ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা থেকে ৬ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

টুইটার
ইলন মাস্ক সম্প্রতি একটি মডেল চালু করেছেন যেখানে লোকেরা তাদের প্রিয় নির্মাতাদের অর্থ প্রদান এবং সদস্যতা নিতে পারে। সাবস্ক্রিপশনের কন্টেন্ট শুধুমাত্র যারা সদস্যতা নিয়েছেন তাদের জন্য উপলব্ধ থাকবে।

ইনস্টাগ্রাম
আপনার যদি ১ খেকে ১০ হাজার ফলোয়ার থাকে, তাহলে আপনি প্রতি পোস্টে গড়ে ৩০০০ থেকে ৪০০০ টাকা চার্জ করতে পারেন। আপনার যদি ১০ হাজার থেকে ১ লাখ ফলোয়ার থাকে, তাহলে আপনি মাসে ৪০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। আর আপনার যদি ১ লাখ থেকে ১০ লাখ ফলোয়ার থাকে, তাহলে ১.৫ লাখ  ৩.৫ লাখ টাকা আয় করা যায়।

টিকটক
টিকটক এর মাধ্যমে আয়ের অনেক উপায় রয়েছে। বিশ্বব্যাপী অসংখ্য ক্রিয়েটর টিকটক এর মাধ্যমে আয় করে জীবিকা অর্জন করছেন। আপনি যদি একজন কনটেন্ট ক্রিয়েটর হন, তবে টিকটক কে আপনার আয়ের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। আপনার টিকটক একাউন্টে যথেষ্ট ফলোয়ার ও নিয়মিত ভিউস থাকলে খুব সহজে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

টিকটক থেকে ইনকাম করার নিয়ম চালু করেছিল টিকটক কর্তৃপক্ষ অর্থাৎ যাদের প্রোফাইলে রিয়েল ১০ হাজার ফলোয়ার ও লাস্ট ৩০ দিনে এক লক্ষর উপরে ভিডিও ভিউ থাকবে তাদেরকে কিছু টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। তবে এই নিয়মটি এখন অনেক দেশেই চালু হয়েছে।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ