খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২৩

খুলনার সেরা বিদ্যালয় মুহাম্মদনগর শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক ময়না

নিজস্ব প্রতিবেদক |
০১:২০ এ.এম | ০২ অক্টোবর ২০২৩


প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২৩ এর খুলনা জেলার সেরা বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়েছে বটিয়াঘাটা উপজেলার মুহাম্মদনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। আর বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক মোঃ মনিরুজ্জামান ময়না হয়েছেন জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক।
প্রাথমিক শিক্ষা পদক বাছাই কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন এবং কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শেখ অহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়। চলতি বছরে শিক্ষা পদকের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই সেরা নির্বাচিত করা হয়েছে। নির্বাচিতরা বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ হওয়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নিবেন।
প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে জানা গেছে, জেলার সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী, শিক্ষার পরিবেশ এবং ফলাফল নিয়ে ২০১২ সাল থেকে প্রতিবছরই বটিয়াঘাটা উপজেলার সেরা বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়ে আসছে মুহাম্মদনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এর আগে ২০১২, ২০১৭ এবং ২০১৯ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়েছে এটি। আর বিদ্যালয়টিকে এই অবস্থানে নিয়ে আসতে প্রধান শিক্ষক মোঃ মনিরুজ্জামান ময়না পেয়েছেন সেরা প্রধান শিক্ষকের মর্যাদা।
এ বিষয়ে অনুভূতি ব্যক্ত করে মনিরুজ্জামান ময়না বলেন, এই কৃতিত্ব বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, অভিভাবক, ম্যানেজিং কমিটি, জেলা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সকলের। তাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, সহযোগিতা এবং দিকনির্দেশনা ছাড়া কখনোই উপজেলায় শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখা সম্ভব হতো না। তিনি বিদ্যালয়ের আরও উন্নতির জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন।
পদকের অন্যান্য ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষক হয়েছেন পাইকগাছার তেলিগাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মিলন সরকার, শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষিকা হয়েছেন খুলনা সদরের পূর্ব বানিয়াখামার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দিলরুবা ইয়াসমিন, শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা দিঘলিয়ার প্রভাবময়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের লিপি খাতুন, শ্রেষ্ঠ কর্মচারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী খান মোঃ মেহেদী হাসান, শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষা অফিসার দিঘলিয়ার কামরুজ্জামান হাসিনা বানু, শ্রেষ্ঠ ইন্সট্রাক্টর ফুলতলার রুহুল আমিন, সেরা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দিঘলিয়ার নুরুল ইসলাম, শ্রেষ্ঠ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি চৌধুরী রায়হান ফরিদ।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ