খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০২৪ | ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

শেখ মেহেদির রেকর্ড গড়া ৮ উইকেট শিকার

জাতীয় লিগে বরিশালের সর্বনিম্ন স্কোর, খুলনার বিশাল জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক |
০৪:১৫ পি.এম | ২০ নভেম্বর ২০২৩


জাতীয় ক্রিকেট লিগে শেখ মেহেদির অনবদ্য বোলিং নৈপুণ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে বরিশালকে ৪৬ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৯ উইকেটের বড় জয় নিয়ে আসর শেষ করল খুলনা বিভাগ। মাত্র ১০ রান দিয়ে ৮ উইকেট শিকার করেন মেহেদি। প্রথম ইনিংসেও তিনি শিকার করেছিলেন ৪ উইকেট। দুই ইনিংস মিলিয়ে ক্যারিয়ারসেরা ৭২ রানে ১২ উইকেট শিকার করে ম্যাচসেরা হন মেহেদি। বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে কোনো ডানহাতি বোলারের এটিই সেরা বোলিং। সানজামুল ইসলামের ৮০ রানে ৯ উইকেট এর মধ্যে সবার সেরা। তিন বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক (দুইবার), সাকলাইন সজীব ও প্রয়াত মোশাররফ হোসেনেরও রয়েছে ইনিংসে ৯ উইকেটের কীর্তি।

জাতীয় ক্রিকেট লিগের ইতিহাসে এটিই সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। এর আগে ২০১৪ সালে রংপুরের বিপক্ষে ঢাকা মেট্রো অলআউট হয়েছিল ৪৮ রানে। এছাড়া চলতি আসরেই চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে চট্টগ্রামের বিপক্ষে বরিশাল গুটিয়ে গিয়েছিল ৫৪ রান।

ঘরের মাঠে শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে টসজয়ী খুলনা ব্যাটিংয়ে পাঠায় বরিশালকে। প্রথম ইনিংসে তারা সংগ্রহ করে ২৩৯ রান। জবাবে ২১৪ রানে শেষ হয় খুলনার ইনিংস। এনামুল হক বিজয় ৬২, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ৪৩ ও আফিফ হোসেন ৩৯ রান করেন।

২৫ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেই শেখ মেহেদির ঘুর্ণি বিষে আক্রান্ত হন বরিশালের ব্যাটাররা। মাত্র ২২.৩ ওভারে ৪৬ রানে গুটিয়ে যায় বরিশাল। ১১.৩ ওভার বল করে ৭ মেডেনে ১০ রান খরচায় ৮ উইকেট শিকার করেন মেহেদি।

৭২ রানের লক্ষ্যে নেমে ১ উইকেট হারিয়েই জয় পায় খুলনা। দুই ইনিংস মিলিয়ে ক্যারিয়ারসেরা ৭২ রানে ১২ উইকেট শিকার করে ম্যাচসেরা হন মেহেদি। বাংলাদে শেষ রাউন্ডের ম্যাচে জয় পেলেও দ্বিতীয় স্তরেই থেকে যেতে হচ্ছে খুলনাকে। সর্বোচ্চ ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্তরের শীর্ষে থেকে শেষ করেছে চট্টগ্রাম বিভাগ।

প্রিন্ট

আরও সংবাদ